স্থায়ী হচ্ছে পদোন্নতি পাওয়া প্রাথমিক শিক্ষকদের চাকরি


Published: 2021-04-07 20:32:47 BdST, Updated: 2021-04-15 19:20:26 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে পদোন্নতি পাওয়া প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকদের চাকরি এক সপ্তাহের মধ্যে স্থায়ী করার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। না হলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে সতর্ক করেছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর (ডিপিই)।

মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) ডিপিইর এ সংক্রান্ত আদেশ বুধবার (৭ এপ্রিল) প্রকাশিত হয়। এতে সতর্ক করে বলা হয়, পদোন্নতি পাওয়া এসব শিক্ষকদের চাকরি এক সপ্তাহের মধ্যে স্থায়ী করতে হবে। নয়তো সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডিপিই সূত্রে জানা গেছে, চাকরি স্থায়ীকরণ না করে দেশের কিছু কিছু জেলার শিক্ষা কর্মকর্তা সময়ক্ষেপণ করছেন। অসৎ উদ্দেশে স্থায়ীকরণ আটকে শিক্ষকদের হয়রানি করা হচ্ছে।

আবার এদিকে কিছু শিক্ষক অভিযোগ করেছিলেন, অবৈধভাবে টাকা উপার্জনের জন্য স্থায়ীকরণ আটকে রাখা হয়েছে।

এমন অভিযোগের পর প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহাম্মদ মনসুরুল আলম সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেন। দেশের একটি গণমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘আমি খোঁজ নিয়ে জানতে পেরে ব্যবস্থা নিয়েছি।’

ডিপিইর আদেশে বলা হয়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পদোন্নতি পাওয়া বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে নিয়োগকৃত প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকদের চাকরি স্থায়ীকরণের বিষয়টি নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষ হিসেবে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার কর্তৃক সম্পন্ন হয়েছে। কোনও কোনও জেলায় তাদের চাকরি স্থায়ীকরণের ক্ষেত্রে অযাচিতভাবে দীর্ঘসূত্রিতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। যা সরকারি সেবা প্রদান প্রতিশ্রুতির সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়।

এমতাবস্থায় সকল পদোন্নতিপ্রাপ্ত বিভাগীয় প্রার্থী হিসেবে নিয়োগকৃত প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকদের পত্রপ্রাপ্তির সাত কর্মদিবসের মধ্যে চাকরি স্থায়ীকরণ সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ করা হলো। এর ব্যতয় ঘটলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ঢাকা, ০৭ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।