প্রেমের প্রস্তাব, ছাত্রীকে চুমু দিয়ে ৩ বন্ধু কারাগারে!


Published: 2019-01-10 21:30:00 BdST, Updated: 2019-07-17 19:28:48 BdST

শেরপুর লাইভ : ছাত্রীকে প্রকাশ্যে চুমু দেয়া নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ওই ছাত্রীকে চুমু দিয়ে কারাগারে গেছে ৩ বন্ধু। বৃহস্পতিবার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

তারা হলেন, শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলার নলজোরা গ্রামের আবুল হাশেমের ছেলে মেহেদী হাসান (২০) তার দুই বন্ধু দক্ষিণ রানীগাঁও গ্রামের মুছা মিয়া (১৯) ও কৃষ্ণপট্টি গ্রামের তুষার মিয়া (২০)। এর আগে বুধবার রাতে তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ। বিকেলে তাদের আদালতে তোলা হয়। পরে শেরপুরের বিচারিক হাকিম তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

জানা গেছে, নালিতাবাড়ী উপজেলার সন্ন্যাসীভিটা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে প্রায়ই রাস্তা-ঘাটে উত্ত্যক্ত করত নলজোরা গ্রামের আবুল হাশেমের ছেলে মেহেদী হাসান। তার প্রস্তাবে রাজি না হয়ে বিষয়টি পরিবারের লোকদের জানায় স্কুলছাত্রী।

একারণে স্কুলছাত্রীকে বিদ্যালয়ে দিয়ে এবং নিয়ে আসত তার বড় ভাই। কয়েকদিন আগে বোনকে বিদ্যালয়ে নিয়ে যাওয়ার পথে ভাইকে মারধর করে বখাটে মেহেদী ও তার বন্ধুরা। পরে গ্রাম্য সালিসে বিষয়টি সমাধান হয়।

এরই মধ্যে ৬ জানুয়ারি দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ওই ছাত্রী বিদ্যালয় থেকে বাড়ি যাচ্ছিল। পথিমধ্যে মেহেদী তার বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে পথরোধ করে প্রকাশ্যে স্কুলছাত্রীকে চুমু দেয়। বিষয়টি জানাজানি হলে স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে বুধবার নালিতাবাড়ী থানায় মামলা করেন। মামলার পরই রাতে অভিযান চালিয়ে মেহেদী হাসান ও তার বন্ধু মুছা মিয়া এবং তুষার মিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

নালিতাবাড়ী থানা পুলিশের ওসি আবুল খায়ের বলেন, ছাত্রীর বাবার অভিযোগের প্রেক্ষিতে ওই তিন বন্ধুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।

 

ঢাকা, ১০ জানুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।