অনুত্তীর্ণদের যে বার্তা দিলেন শিক্ষামন্ত্রী


Published: 2018-12-24 21:55:04 BdST, Updated: 2019-06-25 00:11:14 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: নতুন বার্তা দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। তিনি নানান উৎসাহ ব্যঞ্জক কথা বলেছেন অনুত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে। তাদের আরও মানসিক শক্তি ও মনোবল নিয়ে আগামীতে এই তরী পারের পরামর্শ দিয়েছেন।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, পরীক্ষা মানে পাস-ফেল। কেউ পাস করবে, আবার কেউ করে ফেল। তবে ফেল করলেই সব শেষ নয়, ফেল থেকেই সফলতার গল্পগুলো শুরু হয়।

খুদে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষাতেও পাস-ফেলের পরিসংখ্যান আছে। উত্তীর্ণদের আনন্দের সীমা মাঝে মধ্যে ছাপিয়ে যায় কোনো অনুত্তীর্ণ শিক্ষার্থীর ঘটনাকে কেন্দ্র করে।

সোমবার (২৪ ডিসেম্বর) তিনি পরীক্ষার ফল প্রকাশের সময় বলেন, একবার ফেল করার মধ্যে তার পুরো জীবন মূল্যায়ন করার কারণ নেই। কেউ যেন মন খারাপ করে বসে না থাকেন।

আজ সচিবালয়ে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষার বিস্তারিত ফলাফল প্রকাশের সংবাদ সম্মেলনে নাহিদ বলেন, যারা পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন তাদের সবাইকে অভিনন্দন।

যারা কৃতকার্য হতে পারেননি তাদেরকেও শুভেচ্ছা জানাচ্ছি এবং আশা করছি যে তারা আরো প্রস্তুতি নিয়ে ভবিষ্যতে ভালো ফলাফল করে এগিয়ে আসবে। আমরা সবাই চাই যে তারা ভবিষ্যতে এগিয়ে যাক।

‘একবার ফেল করার মধ্যে তার পুরো জীবন মূল্যায়ন করার কারণ নেই। অনেকে এজন্য অনেক খারাপ করেন, অনেক ঘটনাও ঘটে।

আমরা আশা করবো সবাই উপলব্ধি করবেন যে, ভালো ফলাফল করার জন্য সময় শেষ হয়ে যায়নি। তারা আবার চেষ্টা করবেন, ভালো করবেন কেউ যেন মন খারাপ করে বসে না থাকেন।’ শিক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, আমি সব শিক্ষার্থীকে অভিনন্দন জানাচ্ছি, আর অভিভাবক-শিক্ষকদেরকে জানাচ্ছি তারা যেন ছেলেমেয়েদের প্রতি যত্নবান হন।

এক্ষেত্রে নেগেটিভ কোন একটা দৃষ্টিভঙ্গি তার মধ্যে গড়ে না ওঠে। সে জন্য আরো উৎসাহের সঙ্গে ভালো করবার জন্য পরেরবার চেষ্টা করে। এবার জেএসসি-জেডিসিতে পাসের হার ৮৫ দশমিক ৮৩ শতাংশ।

অন্যদিকে প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি সমাপনীতে পাসের হার ৯৭ দশমিক ৬০ শতাংশ।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, যারা ভালো করেছেন তা যেন যার যার ভবিষ্যত কর্মক্ষেত্রে অথবা শিক্ষা চালিয়ে যাবেন।


ঢাকা, ২৪ ডিসেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।