বিয়ের জন্য গার্লফ্রেন্ডের চাপ, বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের লাশ উদ্ধার


Published: 2017-11-17 00:23:50 BdST, Updated: 2017-12-14 04:16:29 BdST

বেরোবি লাইভ : বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) ছাত্র সুলতান মাহমুদের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ২য় সেমিস্টারের ছাত্র ছিলেন। বৃহস্পতিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন কামাড়ের মোড়ের আফরোজা ছাত্রাবাস থেকে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। তার বাড়ি কুড়িগ্রামের চিলমারি উপজেলার রমনা ইউনিউনের ৯নং ওয়ার্ডে। তিনি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুলল্লাহ শেখের ছেলে। ধারণা করা হচ্ছে ওই ছাত্র আত্মহত্যা করেছেন। তার সহপাঠীদের কয়েকজন জানিয়েছেন ওই ছাত্রের সঙ্গে রৌমারীর এক ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। বিয়ের জন্য ওই ছাত্রী প্রায়ই সুলতানকে চাপ দিত। এনিয়ে আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন সুলতান।

বিশ্ববিদ্যালয় পুলিশ ফাড়ির এসআই মুহিব্বুল ইসলাম মুন বলেন, লাশ উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন কামাড়ের মোড়ের আফরোজা ছাত্রাবাসের সিঙ্গেল একটি কক্ষে থাকতেন সুলতান মাহমুদ। বৃহস্পতিবার রাতে সুলতান মাহমুদের রুমে লেকচার শিট নেওয়ার জন্য যান তার এক সহপাঠী। কিন্তু সুলতানের রুম ভিতর থেকে বন্ধ করা ছিল। অনেক্ষক ডাকাডাকির পরও তার কোন সাড়া না পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে জানান মেসের অন্য শিক্ষার্থীরা।

খবর পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর শফিক আশরাফ পুলিশ নিয়ে তার কক্ষের স্টিলের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করেন। এসময় গামছা দিয়ে বৈদ্যুতিক ফ্যানের সাথে সুলতানকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায়।

সুলতানের সহপাঠীরা বলেন, সুলতান মাহমুদের সঙ্গে রৌমারী উপজেলার উচ্চ মাধ্যমিকের শিক্ষার্থী তামান্নার সঙ্গে দীর্ঘ ৬ বছরের প্রেম ছিল। দীর্ঘদিন যাবৎ থেকে তামান্নাকে বিয়ের চাপ দেয় তামান্নার পরিবার। প্রায় সময়েই সুলতান মাহমুদকে তামান্না বিয়ের চাপ দিতো। এসব বিষয় সহ্য করতে না পেরে সুলতান মাহমুদ আত্মহত্যা করেছে বলে তাদের ধারণা।


ঢাকা, ১৭ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।