হাবিপ্রবিতে শুধু ছাত্রী নয়, শিক্ষকের লালসার শিকার গৃহকর্মীও!


Published: 2019-07-07 13:52:07 BdST, Updated: 2019-09-20 23:18:36 BdST

দিনাজপুর লাইভ : হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) শিক্ষক রমজান আলীর লালসার শিকার কেবল ছাত্রী নয়। গৃহকর্মীও তার কুনজর থেকে বাঁচতে পারেনি। ওই শিক্ষকের লাললসার শিকার হলেও বিচার পাচ্ছে না সে। শুধু তাই ছাত্রীকে যৌন হয়রানির প্রমাণ মিললেও ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে।

হাবিপ্রবির বায়োকেমিষ্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগ থেকে সাময়িক বরখাস্ত হওয়া এসিস্ট্যান্ট প্রফেসর রমজান আলীকে চূড়ান্ত বহিষ্কারের সুপারিশ করা হলেও সেটি বাস্তবায়ন করতে তালবাহানা শুরু করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

জানা গেছে, হাইকোর্টের নির্দেশনায় গঠিত তদন্ত কমিটি গত এক বছর আগে রমজান আলীর বিরুদ্ধে গৃতকর্মীর সাথে অনৈতিক সম্পর্ক এবং ছাত্রীকে যৌন হয়রানীর সত্যতা পায়। এরপর রমজান আলীকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চুড়ান্ত বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়। কিন্তু গত এক বছর ধরে রমজান আলীর বহিষ্কার নিয়ে তালবাহানা শুরু হয়েছে। গত এক বছরে তিনটি রিজেন্ট বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিটি রিজেন্ট বোর্ডে পরিকল্পিতভাবে রমজান আলীকে বহিষ্কারের পূর্ণাঙ্গ দালিলিক তথ্য উপস্থাপন না করে বাঁচানোর চেষ্টা করা হয়েছে।

গত ১২ জুন মহিলা পরিষদের পক্ষ থেকে শিক্ষক রমজান আলীর বিষয়টি রিজেন্ট বোর্ডের সভায় প্রথমে অর্ন্তভুক্তের জন্য স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছিল। কিন্তু সেটা করা হয়নি, যাতে প্রমাণিত হয় রমজান আলীকে বাচানোর চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

এদিকে রমজান আলীকে বহিষ্কার না করলে রমজান আলীসহ ভিসির বহিষ্কারের দাবীতে আমরণ অনশনসহ কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে। এর আগে শনিবার রমজান আলীর চূড়ান্ত বহিষ্কারের দাবিতে মহিলা পরিষদের নেতৃত্বে দিনাজপুরের বিভিন্ন সামাজিক সাংষ্কৃতিক সংগঠন এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল ও মানবন্ধন করেছে।
হাবিপ্রবি’র প্রশাসনিক ভবনের সামনে ঘন্টাব্যাপী মানবন্ধন করে। মানববন্ধনে অংশগ্রহন করে বক্তব্য রাখেন মহিলা পরিষদের সভাপতি কানিজ রহমান, সাধারন সম্পাদক মারুফা বেগম, সম্মলিত সাংষ্কৃতিক জোটের সহ-সভাপতি রেজাউর রহমান রেজু, সামাজিক অনাচার প্রতিরোধ কমিটির আহবায়ক শিক্ষাবিদ শফিকুল ইসলাম, রবীন্দ্র সংগীত সম্মিলন পরিষদের সভাপতি রবিউল আলম খোকা প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ছাত্রীকে যৌন হয়রানি ও গৃহকর্মীর অনৈতিক সম্পর্কের জেরে যৌতুকের জন্য নির্যাতনের অভিযোগ এনে গত বছরের ১৬ জানুযারী বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োকেমিষ্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের শিক্ষক রমজান আলীর বিরুদ্ধে রেজিষ্ট্রারের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন তার স্ত্রী। এ ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে ছাত্রীকে যৌন হয়রানি ও গৃহকর্মীর সাথে অনৈতিক সম্পর্কের প্রমাণ পায় তদন্ত কমিটি। কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে ও আন্দোলনের মুখে গত বছরের ৩০ জুলাই রমজান আলীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

ঢাকা, ০৭ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।