হাবিপ্রবিতে বিচার চেয়ে ভিসিকে ছাত্রলীগের স্বারকলিপি


Published: 2019-03-22 21:04:21 BdST, Updated: 2019-08-18 19:47:45 BdST

হাবিপ্রবি লাইভ: দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (হাবিপ্রবি) ছাত্রলীগের বিবাদমান দু’গ্রুপের কর্মীদের ওপর নির্যাতনের অভিযোগ এনে সুষ্ঠ বিচারের দাবিতে ভিসি বরাবর স্বারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের ওই দু’গ্রুপের কর্মীদের নির্যাতনের বিচার চেয়ে এই স্বারালিপি প্রদান করেন প্রতিপক্ষ ছাত্রলীগের অপর এক গ্রুপ।

বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি বরাবর নেতাকর্মীরা ওই স্বারকলিপি প্রদান করে। এ ব্যাপারে ভিসির পিএস শামসুজ্জোহা বাদশার সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি স্বারকলিপ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

অভিযোগ থেকে জানা গেছে, হাবিপ্রবি শাখা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক (বিলুপ্ত) আতিকুর রহমান রানা স্বাক্ষরিত স্বারকলিপিতে বলা হয়, বিগত ১৭ ই মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ৯৯তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা ও কেক কাটার আয়োজন করা হয়।

উক্ত কেক কাঁটাকে কেন্দ্র করে কিছু অছাত্র নামধারী বহিস্কৃত ছাত্রলীগ কর্মী জামাত শিবিরদের সাথে নিয়ে আমাদের পরীক্ষিত ও ত্যাগী ছাত্রলীগ কর্মীদের ওপর নির্যাতন করে। এমনকি তারা আমাদের কর্মীদের আবাসিক হল থেকে বের করে দিয়ে তাদের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র, ল্যাপটপ ও আসবাব পত্র লুটপাট করেছে।

স্বারকলিপি থেকে আরো জানা গেছে, এ বিষয়ে প্রশাসন ও হল প্রশাসনকে জানানো হলেও প্রশাসন দৃশ্যমান কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেন নি। যার ফলে হল গুলো ক্রমশ মাদক, সন্ত্রাস ও সীট বানিজ্যের অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে। এসব হলগুলো এখন নিয়ন্ত্রণ করছে অনুপ্রবেশকারী অছাত্ররা যারা কখনোই ওতপ্রোতভাবে ছাত্রলীগের সাথে জড়িত ছিলনা ।

আরো বলা হয়, ছাত্রদের নিরাপত্তা দানে ব্যার্থ হওয়ার, এর দায়িত্ব প্রক্টর, ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালকসহ হল প্রাধক্ষ্যদের নিতে হবে। আগামী ৭ দিনের মধ্যে সুষ্ঠ তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেয়া হলে ছাত্রলীগসহ সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিয়ে কঠোর থেকে কঠোরতর আন্দোলনের ডাক দেয়া হবে।

 

ঢাকা, ২২ মার্চ (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।