এক ছাত্রের প্রেমে হাবুডুবু : ধরা খেয়ে প্রাণ দিল দুই বোন!


Published: 2018-02-15 00:44:11 BdST, Updated: 2018-05-22 16:07:46 BdST

রংপুর ব্যুরো : এক ছাত্রের প্রেমে হাবুডুবু খেয়েছে দুই বোন। আর বিষয়টি জানাজানি হলে দুই বোনই আত্মঘাতি হয়েছে। বিশ্ব ভালবাসা দিবসে প্রেমিকের উদ্দেশ্যে চিঠি লিখে কিটনাশক পান করে আত্মহত্যা করেছে ওই দুই ছাত্রী। তারা হলো লুৎফর নাহার লতা (১৪) ও তার খালাতো বোন সাদিয়া জান্নাত অর্নী (১৪)।

বুধবার রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যায়। দুই বোনের আত্মহত্যার ঘটনায় প্রেমিক ছাত্র মেরাজুল ইসলাম পালিয়ে গেছে। এঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

নিহতদের স্বজনেরা জানান, নগরীর মর্ডান শেখপাড়া এলাকার রংপুর মডেল কলেজের অনার্সের ছাত্র আনছার আলীর ছেলে মেরাজুল প্রেমের স্পর্কে জড়িয়ে পড়ে মঞ্জুর হোসেন লিটনের মেয়ে লুৎফর নাহার লতার সঙ্গে। একই সঙ্গে মেরাজুল নামে ওই ছাত্র আলমগীর হোসেনের মেয়ে সাদিয়া জান্নাত অর্নীর সঙ্গেও প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। তারা দুজনে নবম শ্রেনীর ছাত্রী সম্পর্কে আপন খালাতো বোন।

মঙ্গলবার সকালে পহেলা ফাগুন ও ভালবাসা দিবস উপলক্ষ্যে লতা ও অর্নী তাদের নানাবাড়ি মর্ডান শেখপাড়া এলাকায় বেড়াতে যায়। তাদের উদ্দেশ্য ছিল মেরাজুলের সাথে এই দুই দিন সময় কাটানো। কিন্তু দুই জনের প্রেমিক একই হওয়ায় লজ্জায় ক্ষোভে প্রেমিক মেরাজুলের উদ্দেশে আলাদা আলাদা দুটি প্রেমপত্র লিখে সকলের অগোচরে আত্মহত্যা করতে বাড়িতে থাকা কিটনাশক পান করে অসুস্থ হয়ে পরে। বিষয়টি জানতে পেরে পরিবারের লোকজন তাদেরকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার ভোরে সাদিয়া জান্নাত অর্নী ও সকালে লুৎফর নাহার লতা মারা যায়।

দুই প্রেমিকার আত্মহত্যার খবর পেয়ে মেরাজুল ও তার পরিবারের সদস্যরা বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায়। লতা নগরীর নাজির দিঘি উচ্চ বিদ্যালয় ও সাদিয়া জান্নাত অর্নী দর্শনা স্কুলের নবম শ্রেনীর ছাত্রী।

রংপুর কোতয়ালী থানার ওসি বাবুল মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ঢাকা, ১৫ ফেব্রুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।