আইএইচটিতে গণধর্ষনের হুমকির ঘটনায় ৪ ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার, তদন্ত কমিটি


Published: 2017-12-07 19:13:20 BdST, Updated: 2017-12-17 15:47:38 BdST

 

রাজশাহী লাইভ: রাজশাহী ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজির (আইএইচটি) ছাত্রীদের ওপর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হামলার ঘটনায় ৪ ছাত্রলীগ নেতাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। একই সঙ্গে ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার সকালে আইএইচটির প্রিন্সিপাল ডা. সিরাজুল ইসলাম এ কমিটি গঠন করেন।

তবে এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট রাজপাড়া থানায় কোন মামলা দায়ের করা হয়নি। রাজপাড়া থানার ওসি হাফিজুর রহমান ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, ইনস্টিটিউট কর্তৃপক্ষ অথবা ছাত্রীদের পক্ষ থেকে বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ দায়ের করা হয়নি। অভিযোগ পাওয়া গেলে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

অন্যদিকে ছাত্রীদের উপর হামলায় জড়িত থাকায় আইএইচটি ছাত্রলীগের চার নেতাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক তাদের দল থেকে বহিষ্কার করেন।

আইএইচটির প্রিন্সিপাল ডা. সিরাজুল ইসলাম ক্যাম্পাসলাইভকে জানান, আইএইচটির সহযোগী অধ্যাপক আনোয়ারুল ইসলামকে সভাপতি করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

তদন্ত কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন সহকারী অধ্যাপক সেলিম খান ও দুরুল হুদা। কমিটিকে শিগগিরই তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। আর এ ঘটনায় ইনস্টিটিউট কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে থানায় মামলা দায়ের করা হবে কিনা তা তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও জানান প্রিন্সিপাল সিরাজুল ইসলাম।

 

আইএইচটির ছাত্রী

বহিরাগতদের উৎপাত বন্ধ ও নিরাপত্তার দাবিতে বুধবার সকালে আইএইচটির হোস্টেলের ছাত্রীরা অধ্যক্ষকে অবরুদ্ধ ও বিক্ষোভ করে। পরে সেখান থেকে বেরিয়ে হোস্টেলের সামনে অবস্থান নিলে ছাত্রীদের উপর হামলা চালায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

এ ঘটনার পর কর্তৃপক্ষ অনির্দিষ্টকালের জন্য আইএইচটি বন্ধ ঘোষণা করে। একই সঙ্গে দুপুর ১টার মধ্যে ছাত্র এবং ৩টার মধ্যে ছাত্রীদের হোস্টেল ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি রকি কুমার ঘোষ বলেন, ছাত্রীদের ওপর হামলার ঘটনায় আইএইচটি ছাত্রলীগের সভাপতি জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, সহ-সভাপতি মিজান আলী, ফয়সাল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন তুহিনকে বহিষ্কার করেছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

এর আগে বুধবার সন্ধ্যায় আইএইচটি ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগ। একই সঙ্গে তাদের বহিষ্কারের সুপারিশ করে কেন্দ্রীয় কমিটিতে চিঠি পাঠানো হয় বলে জানান রকি কুমার ঘোষ।

জানাগেছে সভাপতি জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, সহ-সভাপতি মিজান আলী, ফয়সাল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন তুহিনের বিরুদ্ধে নানান অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে। এর আগের ছাত্রীরা তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন কিন্তু কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে কোন উদ্যোগ নেয়নি। কিন্তু এবার মিডিয়াতে আসার পর তাদের টনক নড়ে।

তবে এই চক্রটির ব্যাপারে ভয়ে কেউ মুখ খুলতো না। সব কিছুই নিরবে সহ্য করতো সকলে। জাহিদ-মিজানরা প্রায়ই ছাত্রীদের উত্যক্ত করতো। সুন্দরী ছাত্দেরীদের দেখে নানান ধরনের আজে-বাজে ,মন্তব্য করতো। বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন সময় ছাত্রীরা বিচার চাইলেও কাজের কাজ কিছুই হতো না।

ঢাকা, ০৭ ডিসেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।