রাবিতে ‘উস্কানিমূলক’ প্রশ্নের অভিযোগে তদন্ত কমিটি


Published: 2017-10-28 20:59:22 BdST, Updated: 2017-11-18 12:11:57 BdST

রাবি লাইভ: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে চারুকলা অনুষদের ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নে মায়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলমানদের উপর নির্যাতন ও ধর্মীয় গ্রন্থ নিয়ে সাম্প্রদায়িক উস্কানিমূলক প্রশ্নের অভিযোগ খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে। গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর আব্দুস সোবহান এ তদন্ত কমিটি গঠন করেন বলে নিশ্চিত করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক প্রফেসর প্রভাষ কুমার কর্মকার।

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতরের প্রশাসক প্রফেসর প্রভাষ কুমার কর্মকার ভিসি প্রফেসর আবদুস সোবহানের বরাত দিয়ে বলেন, ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে ‘সাম্প্রদায়িক’ প্রশ্নটি কিভাবে এবং কেন করা হয়েছিল তা তদন্ত করার জন্যই বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি স্যার প্রো-ভিসি আনন্দ কুমার সাহাকে প্রধান করে চার সদস্যের এই কমিটি গঠন করেছেন।

কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. শহীদুল্লাহ, ফলিত পদার্থ বিজ্ঞান ও ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রফেসর আবু বকর ইসমাইল, রসায়ন বিভাগের প্রফেসর নজরুল ইসলাম।

এদিকে গঠিত তদন্ত কমিটিকে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় ভিসি বলে জানা যায়।

জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. আনন্দ কুমার সাহা বলেন, ‘তদন্তের জন্য আমাদেরকে ১৫ দিন সময় দেয়া হয়েছে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই তদন্ত কাজ শেষ করতে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

প্রসঙ্গত, গত ২৫ অক্টোবর অনুষ্ঠিত চারুকলা অনুষদের পরীক্ষায় দুইটি প্রশ্নে ‘সাম্প্রদায়িকতার’ অভিযোগ ওঠে। এর পর থেকে ব্যপক সমালোচনায় পড়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ঘটনার ৩ দিন পর এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হলো।

 

ঢাকা, ২৮ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমএইচ

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।