রাবিতে বিষয়কোডের দাবিতে প্রতিকী প্রতিবাদ!


Published: 2020-01-27 15:55:42 BdST, Updated: 2020-02-23 14:35:27 BdST

রাবি লাইভঃ গ্রাজুয়েশন শেষ করা শিক্ষার্থীর এক হাতে সার্টিফিকেট আর অন্যদিকে সরকারী কর্ম কমিশনে (পিএসসিতে) বিষয়কোড না থাকায় চাকরি পেতে বিড়ম্ভনার প্রতিকী চিত্রটি ফুটিয়ে তুলেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) পপুলেশন সায়েন্স এন্ড হিউম্যান রিসোর্স ডেভেলপমেন্ট বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

সোমবার ৭ম দিনের মত বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশনে (পিএসসি) বিষয়কোড অন্তর্ভূক্তির দাবিতে এমনই প্রতিকী চিত্রের মাধ্যমে ফুটিয়ে তুলেছে উক্ত বিভাগের শিক্ষার্থীরা।
আন্দোলনে ৭ম দিনের মত প্রথমে বিভাগের সামনে থেকে একটি র‌্যাালি বের করে প্রশাসন ভবনের সামনে দিয়ে প্যারিস রোডে এসে মানববন্ধনে অংশ নেয়।

মানবন্ধনে মাস্টার্সের শিক্ষার্থী রুহুল কুদ্দুসের সঞ্চালনায় শিক্ষার্থী রাজু বিশ্রা বলেন, আন্দোলনে যে বিষয়টি নিয়ে দাবি জানাচ্ছি সেটা ছোট্ট একটি কোডের দাবি। সরকারী কর্মকমিশন (পিএসসি) আমাদের বঞ্চিত করেছে। বিভাগের স্যারেরা পিএসসিতে গিয়েও বিষয়টিকে তারা মূল্যায়ন করছেনা। বাংলার ছাত্র সমাজ হার মানেনা। প্রাপ্ত অধিকার নিয়ে ঘরে ফিরবো।

আরেক শিক্ষার্থী মদিনা খাতুন, বলেন ‘রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হয়েও পপুলেশন সায়েন্স এন্ড হিউম্যান রিসোর্স ডেভেলপমেন্ট বিভাগটি বিষয় কোড পেতে আন্দোলন করতে হয়। ১৯৯৬ সালে প্রতিষ্ঠা হলেও এখন পর্যন্ত নিজস্ব বিষয় কোড পায়নি, যা আমাদের জন্য অত্যন্ত লজ্জার।’

শিক্ষার্থীরা আরও বলেন, ‘আমাদের শিক্ষকরা যখন বিষয় কোডের দাবি জানায় তখন (পিএসসি) থেকে বিভিন্ন আশ্বাস দেয়া হয়। কিন্তু আমরা আর আশ্বাসে বসে থাকবো না। বিষয়কোড নিয়ে বাড়ি ফিরবো। চাকরির পরীক্ষায় বিষয় কোড নিয়ে বিড়ম্বনা ও প্রক্রিয়াধীন সমস্যা সমাধান না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলনে চলবে। দ্রুত সময়ের মধ্যে পিএসসি তাদের দাবির বিষয়ে প্রয়োজনীয় কোনও পদক্ষেপ না নিলে কঠোর আন্দোলনে যাওয়ার ঘোষণা দেন শিক্ষার্থীরা।

প্রসঙ্গত, এর আগে একই দাবিতে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন, বিক্ষোভ র‌্যালি ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

ঢাকা, ২৭ জানুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।