রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিসহ ৩ জনকে আদালতে তলব


Published: 2019-05-03 20:01:42 BdST, Updated: 2019-05-22 09:12:32 BdST

রাবি লাইভঃ এবার অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা অমান্য ও আদেশ নিয়ে তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করার অভিযোগ আমলে নিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যসহ (ভিসি) তিনজনকে তলব করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার বিচারক মো. মনিরুজ্জামান মামলার বিবাদীদের হাজির হওয়ার এ নির্দেশ দেন বলে জানান মামলার আইনজীবী নূরে কামরুজ্জামান ইরান।

কামরুজ্জামান জানান, আগামী ২৭ জুন তাদের আদালতে হাজির হওয়ার এ নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। এর আগে বৃহস্পতিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন ও ভূমি প্রশাসন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক শাহরিয়ার পারভেজ বাদী হয়ে রাজশাহী সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে এ মামলা করেন।

আসামিরা হলেন- ভিসি অধ্যাপক ড. এম আব্দুস সোবহান, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এম এ বারী এবং আইন ও ভূমি প্রশাসন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম। মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গত ২১ এপ্রিল আদালতে ৬৭/১৯ নম্বর মোকদ্দমায় বাদী অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা প্রার্থনা করলে ২৪ এপ্রিল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন ও ভূমি প্রশাসন বিভাগের সভাপতি নিয়োগে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা দেন আদালত।

এরপর ২৫ এপ্রিল সকাল ৯টা ৫ মিনিটে আদালতের নিষেধাজ্ঞার কপি নিয়ে রেজিস্ট্রার দফতরে হাজির হন বার্তা বাহক। কিন্তু রেজিস্ট্রার অফিসের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা তার কাছ থেকে নিষেধাজ্ঞার কপি নেননি। ওই সময় তাকে বসিয়ে রাখেন।

অবমাননাকর কথা বলেছেন এবং যখন ৯টা ৫৫ মিনিটে বলা হয়েছে, আপনি নেবেন কি-না তখন নেয়া হয়েছে এবং তাকে অবমাননাকর কথা বলা হয়েছে। তাই দেওয়ানি কার্যবিধি আইনের আদেশ ৩৯ ধারাবিধি ২ এর ৩ মতে কেন তাদেরকে সিভিল জেলে ৬ মাস আটক করা হবে না বা তাদের সম্পতি ক্রোক করা হবে না এই মর্মে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গত ২১ এপ্রিল বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এম এ বারী স্বাক্ষরিত একটি চিঠি ইস্যু করে আইন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক রফিকুল ইসলামকে প্রেষণে আইন ও ভূমি প্রশাসন বিভাগে স্বপদে ও সবেতনে স্থানান্তর করা হয়।

সেই সঙ্গে ২৫ এপ্রিল থেকে আগামী তিন বছরের জন্য আইন ও ভূমি প্রশাসন বিভাগের সভাপতি পদে নিয়োগ দেয়া হয় অন্য একটি বিভাগের শিক্ষককে।

ঢাকা, ০৩ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।