গার্লফ্রেন্ডকে ভাগিয়ে মোটরবাইকে ঘোরানোয় এইচএসসি পরীক্ষার্থীকে হত্যা!


Published: 2019-04-28 21:17:34 BdST, Updated: 2019-07-21 09:23:41 BdST

বগুড়া লাইভ: গার্লফ্রেন্ডকে ভাগিয়ে নিয়ে মোটরবাইকে ঘোরাফেরা করায় সেই এইচএসসি পরীক্ষার্থী নাজিউর রহমান নাহিদকে হত্যা করেছে তার বন্ধুরা এমন অভিযোগ পাওয়া গেছে। একই কলেজের এক ছাত্রীকে নিয়ে মোটরবাইকে ঘোরাঘুরি করায় ক্ষুব্ধ ছিলেন স্কুলজীবনের বন্ধু নীরব। একসময় তার সঙ্গে ওই ছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক ছিল।

নীরবের পক্ষ নেয় তার মামাতো ভাই রবিউল ইসলাম, বন্ধু রিয়াদ ও রাকিব। কয়েকদিন আগে নাহিদকে ডেকে নিয়ে প্রকাশ্যে হুমকি দিয়েছিল নীরব। ৫-৬ দিন আগে রবিউলের ফোন থেকে তৃতীয়পক্ষ পরিচয়ে ওই ছাত্রীর কাছ থেকে নাহিদকে সরে যেতে এক ব্যক্তি তার বাবা মতিউর রহমান মাস্টারকে হুমকি দেয়। অভিযোগ পেয়ে ইউপি চেয়ারম্যান শালিস বৈঠক ডাকলেও রবিউল হাজির না হওয়ায় বিচার ভেস্তে যায়।

মোস্তাইল বাজারের মোটর বাইক মেকানিক্স অস্ত্র, চুরিসহ কয়েকটি মামলার আসামী সুমন ৮০০ টাকায় নীরবকে বার্মিজ চাকু কিনে দেয়। ওই চাকু দিয়েই নাহিদকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ। আটক রবিউলের দেয়া তথ্যমতে প্রাথমিকভাবে এমন তথ্য পেয়েছে পুলিশ। তবে শাজাহানপুর থানার ওসি (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ মামলা হবার আগে ও তদন্তের স্বার্থে এখনই এসব ব্যাপারে মন্তব্য করতে রাজি হননি।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, নাজিউর রহমান নাহিদ বগুড়ার শাজাহানপুর উপজেলার খোট্টাপাড়া ইউনিয়নের নারিল্যা গ্রামের শিক্ষক মতিউর রহমানের ছেলে। তিনি বগুড়া ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজের ছাত্র। তিনি এবার ডেমাজানি সরকারি কমরউদ্দিন ইসলামিয়া কলেজ কেন্দ্র থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা দিচ্ছেন।

বোহাইল উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়ার সময় নাহিদের সাথে বোহাইল গ্রামের আজাহার আলীর ছেলে নিরব, রিয়াদ ও রাকিবের সাথে বন্ধুত্ব ছিল। নাহিদ বগুড়া ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজে ভর্তি হন। বোহাইল গ্রামের এক ছাত্রী নাহিদের সাথে ওই কলেজে পড়ে। ওই ছাত্রীর সাথে নিরবের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সম্প্রতি ওই ছাত্রীর সাথে নাহিদের প্রেমের সম্পর্ক হয়। নাহিদ তাকে ২-৩ তার বাইকে নিয়ে বেড়াতে যায়। এ ঘটনায় নিরব ক্ষুব্ধ হয়। সে কিছুদিন আগে নাহিদকে ডেকে ওই মেয়ের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করতে হুমকি দেয়।

এদিকে নাজিউর রহমান নাহিদ শনিবার ডেমাজানি সরকারি কমরউদ্দিন ইসলামিয়া কলেজ কেন্দ্রে রসায়ন দ্বিতীয়পত্র পরীক্ষা দেন। দুপুরে বন্ধু সহপাঠী জাহিরুল ইসলাম তোহাকে মোটরবাইকে নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। বেলা ড়েটার দিকে তারা উপজেলার চুরুলিয়া এলাকায় ইউনিব্রাার্স পোলট্রি ফার্মের কাছে পৌঁছলে দুর্বৃত্তরা তারে পথরোধ করে। কথা বলার এক পর্যায়ে দুর্বৃত্তরা নাহিরে কোমড়ের বাম পাশে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে নাহিদ মারা যান।

শাজাহানপুর থানার ওসি আজিম উদ্দিন জানান, আটক রবিউলকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।


ঢাকা, ২৮ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলঅইভ২৪.কম)//এমআই

 

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।