বিশ্ববিদ্যালয়ে রামদা নিয়ে হামলাকারী মানিকের চান্স কোটায়!


Published: 2018-07-03 13:24:55 BdST, Updated: 2018-11-14 04:53:38 BdST

রাবি লাইভ : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ রাবি শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক তরিকুল ইসলমকে পিটিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করা হয়েছে। তিনি অনেকটা জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রয়েছেন।

তার ওপর স্বশস্ত্র হামলার নেতৃত্বদানকারীদের একজন লতিফুল কবির মানিক যিনি রাবিতে ভর্তি হয়েছিলেন মুক্তিযোদ্ধা কোটায়। তার আঘাতেই সবচেয়ে বেশি রক্তাক্ত হন তারেক।

এর আগে রোববার রাতে মানিক তার ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন, ‘গর্জে উঠেছে ছাত্রলীগ..এবার সাহস থাকলে রাজপথে নাম, নেড়ি কুত্তার মতো তোদের পিটাব।’

এদিকে সোমবার রাবিতে কোটা সংস্কারে প্রজ্ঞাপনের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর চড়াও হন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। বিকেল সোয়া ৪টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা করে ছাত্রলীগ। তাদের হামলায় বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ রাবি শাখার যুগ্ম আহ্বায়ক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী তারেক মারাত্মক আহত হন।
তাকে কয়েকজন ঘিরে ধরে ইচ্ছামতো পেটানো হয়।

এসময় হামলাকারীদের ভেতর অন্যতম লতিফুল কবির মানিকের হাতে ছিলো ধারালো অস্ত্র। তার সেই হামলার কিছু ছবি সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

মানিক সম্পর্কে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তিনি ইতিহাস বিভাগে মার্স্টাসের ছাত্র। থাকেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শেরে ই বাংলা আবাসিক হলে। মানিকের বাড়ি লালমনিরহাট জেলায়।
মানিক একটি কালো ব্যাগে করে তার ধারালো অস্ত্রটি নিয়ে অবস্থান নেয় বিশ্ববিদ্যালয় গেটে। পরে মিছিল আসলে রামদা নিয়ে তিনি হামলা চালান।

ঢাকা, ০৩ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।