রুয়েটে ফিরে আসুক সেই চিরচেনা হাসি


Published: 2018-05-27 02:31:33 BdST, Updated: 2018-06-18 15:17:28 BdST

মন্তব্য প্রতিবেদন : নেপালে বিমান দুর্ঘটনায় মারাত্মক আহত হয়েছিলেন রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষিকা ইমরানা কবির হাসি। আহত হয়েছিলেন তার স্বামী। তাকে বাঁচানো যায়নি। হাসিকে রেখেই তিনি চলে গেছেন না ফেরার দেশে।

সেদিনের সেই দুঃসহ স্মৃতি নিয়ে বেঁচে আছেন হাসি। তবে তার সেই চিরচেনা হাসি আর নেই। দুর্ঘটনা তার জীবনের হাসি কেড়ে নিয়েছে। হাসপাতালের বেডে বেঁচে থাকার সংগ্রাম চলছে তার। ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন তিনি। তার হাতের আঙ্গুল হারিয়েছেন। হারিয়েছেন তার চেহারার সৌন্দর্য। হারিয়ে যায়নি তার মনোবল।

শিক্ষার্থীদের ভালোবাসার টানে তিনি আবারো ক্যাম্পাসে ফিরতে চান। শিক্ষার্থীরা আছেন প্রিয় শিক্ষকের অপেক্ষায়। সুস্থ হয়ে ফিরবেন তিনি ক্যাম্পাসে এই প্রত্যাশা তাদের। হয়তো তার সেই চিরচেনা হাসি মলিন হয়ে দেখা দেবে। মনের কষ্ট ভুলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে ভালোবাসা ভাগ করে নেবেন তিনি।

আমরা আশা করি ইমরানা কবির হাসি আবারো তার চিরচেনা ক্যাম্পাসে জ্ঞানের আলো ছড়িয়ে যাবেন। তার আলোয় আলোকিত হবে হাজারো স্বপ্ন। মেলে ধরবে জীবনের পাখনা।
ফিরে আসুক সেই চিরচেনা হাসি। সেই অপেক্ষায় রইলাম...

[উল্লেখ্য, নেপালে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমানে স্বামীসহ ছিলেন রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) শিক্ষিকা ইমরানা কবির হাসি। ১৫ দিনের ছুটিতে তারা বেড়াতে যাচ্ছিলেন। স্বামী রকবুলসহ হাসি নেপালে ছুটি কাটাতে যাচ্ছিলেন। ১২ মার্চ দুর্ঘটনায় আহত হাসি বেঁচে থাকলেও মারা গেছেন তার স্বামী]

ঢাকা, ২৭ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।