বশেমুরবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতির চলতি কমিটি বিলুপ্তঃ নতুন কমিটি গঠন


Published: 2019-09-19 16:07:37 BdST, Updated: 2019-10-14 07:32:53 BdST

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি) এর চলতি সাংবাদিক সমিতির কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেছে বশেমুরবিপ্রবিসাস এবং সেই সাথে জরুরি ভিত্তিতে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার সাংবাদিক সমিতির এক বিজ্ঞপ্তিতে এমনই খরব প্রকাশ করা হয়েছে বলে জানা যায় ।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এতদ্বারা সকলের অবগতির জন্য জানানো যাইতেছে যে, বশেমুরবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতির বর্তমান কমিটির নেতৃবৃন্দের বিতর্কিত কর্মকাণ্ড ও দায়িত্বে অবহেলার কারণে সাংবাদিক সমিতির ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে। এমতাবস্থায় সাংবাদিক সমিতির সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্য বর্তমান কমিটির নেতৃত্বের প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপন করেছেন। তাই সার্বিক দিক বিবেচনা করে বর্তমান কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হইলো এবং বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের সাথে সম্পৃক্ত থাকায় সাইফুল ইসলাম, মোঃ ওয়ালিউল্লাহ, মিসবাহুল ইসলাম রিয়াদ ও রাকিবুল ইসলামকে সাংবাদিক সমিতিতে অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হইলো।

উক্ত নোটিশ জারি করেন, সদ্য বিলুপ্ত সাংবাদিক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম। হঠাৎ সাংবাদিক সমিতির কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করার সমিতির কর্তব্যরত দায়িত্বশীলদের দায়িত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

পরে সাংবাদিক সমিতির আর এক বিজ্ঞপ্তিতে বশেমুরবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতির সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যের মতামতের ভিত্তিতে বর্তমান কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করায় জরুরি ভিত্তিতে নতুন কমিটি ঘোষণা করে।

নতুন কমিটিতে সভাপতি দায়িত্ব অর্পিত হয় শামস জেবিনের ওপর এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হন জাহিদুল ইসলাম। তাছাড়া দপ্তর সম্পাদক: তাওহীদ ইসলাম এবং প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক: মাইনউদ্দিন পরান দায়িত্ব পালন করছেন।

গত ১১ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. নূরউদ্দিন আহমেদ স্বাক্ষরিত এক নোটিশে আইন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ও ডেইলি সানের ক্যাম্পাস প্রতিনিধি ফাতেমা-তুজ-জিনিয়াকে বিশ্ববিদ্যালয়কে নিয়ে আপত্তিকর লেখালেখি এবং প্রশাসনকে বিব্রতকর করার চেষ্টার জন্য সাময়িকভাবে এক সেমিস্টারের জন্য বহিষ্কার করা হয়।

সেই প্রেক্ষিতে ১৮ সেপ্টেম্বর আইন বিভাগের শিক্ষার্থীদের ক্ষমা চেয়ে আবেদন এবং বিভাগের সকল শিক্ষক উক্ত ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে জিনিয়ার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের জন্য ভিসি বরারবর আবেদন করলে বিশ্ববিদ্যালয় জিনিয়ার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করে নেন।

উল্লেখ্য জিনিয়ার বহিষ্কার আদেশ প্রকাশিত হওয়ার পর গত ১৪ সেপ্টেম্বর বশেমুরবিপ্রবি সাংবাদিক সমিতি থেকেও জিনিয়াকে বহিষ্কার করা হয়। আবার যখন জিনিয়ার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করলো বিশ্ববিদ্যালয় ঠিক তখনই সাংবাদিক সমিতির কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে জরুরি ভিত্তিতে নতুন কমিটিতে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পান সদ্য বহিষ্কারাদেশ থেকে মুক্তি পাওয়া ফাতেমা তুজ জিনিয়া।

ঢাকা, ১৯ সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।