রাব্বানীর প্রটোকলে না যাওয়ায় শিক্ষার্থীদের রুমে তালা


Published: 2019-09-10 14:31:49 BdST, Updated: 2019-09-20 09:59:46 BdST

ঢাবি লাইভ: মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদককে প্রটোকল দিতে না যাওয়ায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সূর্যসেন হলের ৪টি রুমে তালা দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে ৩২ জন শিক্ষার্থীকে রাতভর হলের বাইরে অবস্থান করতে হয়েছে।

রবিবার রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সূর্যসেন হলে এই ঘটনা ঘটেছে। তালা দেওয়া রুমগুলো হলো ৬২৬ (ক), ৪০১ (ক), ২৩৭, ২৪৮। হল ছাত্রলীগের যুগ্ন সম্পাদক সৈয়দ শফিউল ইসলাম শপু রুমে তালা দেন বলে অভিযোগ ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীদের। তিনি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর অনুসারী।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হলের একাধিক শিক্ষার্থী জানান, রবিবার দুপুরে রাব্বানী মধুতে এসেছিল। দীর্ঘ দিন যাবত আমরা বিভিন্ন প্রোগ্রাম করে আসছি কিন্তু আমাদের রাখা হচ্ছে গণরুমে। আজকে আমরা ইচ্ছা করে কেউ রাব্বানী ভাইয়ের প্রটোকলে যাইনি। রাতে গেস্টরুমেও আসিনি। যার কারণে আমাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে শপুর নির্দেশে তৃতীয় বর্ষের কয়েকজন রুমগুলোতে তালা ঝুলিয়ে দেয়। আমাদেরকে বলা হয় যেখানে ইচ্ছা সেখানে যেতে পারিস। সরেজমিন এসব কক্ষে তালা ঝুলতে দেখা যায়।

এ ব্যাপারে শরীফুল ইসলাম শপু বলেন, দ্বিতীয় বর্ষের আমার গ্রুপের কয়েকজন শিক্ষার্থী এসে বলে তারা আমার গ্রুপে থাকবে না। পরে আমি তাদেরকে বলছি কে কে গ্রুপ পরিবর্তন করতে চাস? তারা অনেকে হ্যা বলেছে। তখন তাদের বলছি চলে যেতে পারিস। তালা লাগানোর বিষয়টি তিনি জানেন না বলে দাবি করেন।

অভিযোগ আছে শিক্ষার্থীরা কিছু বলতে চাইলে তাদের জামায়াত-শিবির আখ্যা দিয়ে হল থেকে বের করে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হতো। কিছুদিন আগে মহব্বত নামের এক শিক্ষার্থীকে ছাত্রদল ব্লেম দিয়ে বের করার হুমকি দিয়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক গোরাম রাব্বানীকে একাধিকবার কল দিয়েও পাওয়া যায়নি। উল্লেখ্য বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে মধুর ক্যান্টিনে বিলম্বে উপস্থিত হওয়া এবং নিয়মিত উপস্থিত না হওয়ায় ক্ষুদ্ধ হয়ে গত শনিবার ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙ্গে দেওয়ার জন্য বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার একদিন পরেই গতকাল রবিবার মধুর ক্যান্টিনে উপস্থিত হন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।

 

ঢাকা, ১০ সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।