নর্থ সাউথের শিক্ষক নিখোঁজের ঘটনায় রহস্য বাড়ছে


Published: 2017-11-11 19:42:44 BdST, Updated: 2017-11-23 11:09:36 BdST

 

 

 


লাইভ প্রতিবেদক: নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক নিখোঁজের ৭২ ঘন্টার পরেও উদ্ধার হয়নি। এই নিয়ে চলছে নানা ধরনের আলোচনা-সমালোচনা। পুলিশ ও গোয়েন্দারা এবিষয়ে তেমন কোন তথ্য দিতে পারেননি। জঙ্গি কানেকশন আছে কি না তার জানা যাচ্ছেনা।

তারাও এনিয়ে আছেন বেকায়দায়। নিখোঁজের ঘটনায় বাড়ছে ক্ষোভ। চলছে বিভিন্ন ধরনের হিসাব-নিকাশ। ওই শিক্ষকের সঙ্গে অন্যকোন কানেকশন আছে কিনা এ ব্যাপারটি উড়িয়ে দিচ্ছেন না কেউ কেউ। তবে নর্থসাউথ তার ব্যাপারে স্পস্ট করে কিছুই বলছে না।

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মত প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক নিখোঁজের বিষয়টি কেউ স্বাভাবিক ভাবে মেনে নিতে পারছেন না। কেন তিনি নিখোঁজ হলেন, এর নেপথ্যে কাড়া কল-কাঠি নাড়াচ্ছে, কাদের রয়েছে ইন্ধন, এমনি রাজনৈতিক কোন কুটচাল আছে কিনা এ ব্যাপারটিও নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। তবে কেন এই নিখোঁজের ঘটনা, এই প্রশ্ন এখন ক্যাম্প‍াস জুড়ে।

এ ব্যাপারে নর্থ সাউথের ভিসি প্রফেসর আতিকুর রহমান ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, আমরাও চিন্তিত। এব্যাপারে আমরা আইনশৃংখল‍া বাহিনীর সদস্যদের সহায়তা নিচ্ছি। তারা আমাদের কে ফলোআপ দিচ্ছে, চেষ্ঠা করছে। এর বাইরে আমাদের কাছে কোন তথ্য নেই। জঙ্গি কানেকশন আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার জানা নেই। এটা তো পুলিশ ও গোয়েন্দাদের কাজ। তারা তদন্ত করে দেখছে।

শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা বলছেন, এভাবে চলতে দেয়া যায় না। কে কখন কোথায় নিখোঁজ হবে এবিষয়টির ব্যাপারে সকলকেই সজাগ থাকতে হবে। নতুবা এই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটতেই থাকবে।

এদিকে তরুণ শিক্ষক ও গবেষক মোবাশ্বার হাসান সিজারের দ্রুত সন্ধান এবং এ ব্যাপারে প্রশাসনের জোরালো পদক্ষেপের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা।

রবিবার সকাল ১০টায় অপরাজেয় বাংলার পাদদেশ এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হবে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক গীতি আরা নাসরিন ক্যাম্পাসলাইভকে জানান, ৭২ ঘণ্টার বেশি পার হয়ে গেলেও এখনও পর্যন্ত সিজারের কোনো সন্ধান মেলেনি।
এ ব্যাপারে প্রশাসনের পক্ষ থেকেও তেমন কোনো দৃশ্যমান পদক্ষেপও দেখা যাচ্ছে না।

মোবাশ্বার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করে বিদেশে উচ্চতর ডিগ্রি গ্রহণ করেন। পরে দেশে ফিরে তিনি অধ্যাপনা ও গবেষণার কাজে নিজেকে নিয়োজিত করেন।

এমন একজন মেধাবী শিক্ষক ও গবেষক নিখোঁজ হওয়ায় পরিবারের পাশাপাশি আমরা তাঁর শিক্ষক, সহপাঠী এবং বিভাগের সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা উদ্বিগ্ন ও শঙ্কিত।

উল্লেখ্য, গত ৭ নভেম্বর বিকালে কর্মস্থল নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বনশ্রীর বাসার উদ্দেশে রওয়ানা হওয়ার পর থেকে ‘নিখোঁজ’ রয়েছেন মোবাশ্বের হাসান সিজার।

ওইদিন সকাল ৭টায় কর্মস্থলে যাওয়ার উদ্দেশে বাসা থেকে বের হন তিনি। সেদিন সন্ধ্যা পৌনে সাতটা থেকে তার মুঠোফোনটি বন্ধ রয়েছে। সিজার বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় নর্থ সাউথের সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সহকারী অধ্যাপক।

ঢাকা, ১১ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।