আট মাসে দুর্ঘটনায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১১ শিক্ষার্থী নিহত


Published: 2018-11-26 02:34:49 BdST, Updated: 2018-12-11 00:26:32 BdST

লাইভ প্রতিবেদক : গত অাট মাসে দুর্ঘটনায় বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১১ শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে ৮ জন নিহত হয়েছেন সড়ক দুর্ঘটনায়, দুইজন নিহত হয়েছেন ট্রেনে কাটা পড়ে। বাকী একজন হলের বেলকনি থেকে পড়ে নিহত হয়েছেন। যদিও এদের মধ্যে একজনের মৃত্যু নিয়ে রহস্য রয়ে গেছে। সর্বশেষ শনিবার (২৪ নভেম্বর) মাগুরায় নিহত হয়েছেন আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ছাত্র রাব্বি। গত আট মাসে ১১ শিক্ষার্থীর না ফেরার দেশে চলে যাওয়া সহপাঠী মনে গভীর দাগ কেটেছে। প্রিয় সন্তানকে হারিয়ে কান্না থামছে না স্বজনহারাদের।

আজাদ হোসেন
আজাদ হোসেন

আজাদ হোসেন : ওয়ার্ল্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র আজাদ হোসেন মে মাসের প্রথম সপ্তাহে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। তিনি কুমিল্লার নাঙলকোট থানার তুগুরিয়ে গ্রামের আবু তাহের ছেলে। তিনি ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের সিভিল (বিএসসি) বিভাগে পড়াশোনা করতেন। পড়াশোনার পাশাপাশি পার্টটাইম চাকরিও করতেন। বরাবরের মত, কাজ শেষ করে বাসায় ফেরার সময় ঢাকার প্রান্থপথে পিকআপ, ট্রাকের সংঘর্ষে মারাত্নক ভাবে আহত হয়ে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ইয়াসিন আহমেদ শুভ : সড়ক দুর্ঘটনায় মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ইইই বিভাগের (সান্ধ্যকালীন) ছাত্র ইয়াসিন আহমেদ শুভ নিহত হয়েছেন গত ১১ মে। মিরপুর বেড়িবাঁধের চাটবাড়ি এলাকায় বাস ও লেগুনার সংঘর্ষে তিনি নিহত হন। তিনি রাজধানীর মিরপুর ৬ নং এলাকার আসাদুজ্জামান মিয়ার ছেলে। তিনি দুই ভাইয়ের মধ্যে বড় ছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের আশুলিয়ায় অবস্থিত স্থায়ী ক্যাম্পাসে ক্লাস শেষে লেগুনায় চড়ে ফেরার পথে বিপরীত থেকে আসা একটি বাস তাকে চাপা দেয়। এতে ঘটানস্থলেই তিনিসহ ৩ জন নিহত হন।

শিবলি সাদিক শুভ্র : রাজধানীর মিরপুরের বেড়িবাঁধ এলাকায় গত ১১ মে বাস ও লেগুনের সংঘর্ষে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিবলি সাদিক শুভ্র নিহত হন। শিবলী সাদিক শুভ্র আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির কম্পিউটার সাইন্সের শিক্ষার্থী। তার বাবার নাম আমজাদ হোসেন। গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জ। শিবলী ইউনিভার্সিটি থেকে লেগুনা বাসায় ফিরার পথে দুর্ঘটনার শিকার।

সাইফুল্লাহ তালুকদার মহসিন : বিশ্ববিদ্যালয়ের হলের বেলকনি থেকে পড়ে সাইফুল্লাহ তালুকদার মহসিন (২২) নামে এক ছাত্র নিহত হয়েছে। তিনি ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটির ছাত্র। তার বাড়ি নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া থানার কোমরওরা গ্রামে। তার বাবার নাম আলী আকবর তালুকদার মল্লিক। ২৩ এপ্রিল (সোমবার) গভীর রাতে সাভারের দত্তপাড়া এলাকায় ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটির আবাসিক হলে এ ঘটনা ঘটে।

শিক্ষার্থীরা জানান, গভীর রাতে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটির বিবিএ তৃতীয় সেমিস্টারের ওই ছাত্র নিজের আবাসিক হলের রুম থেকে অন্য রুমে যাওয়ার সময় ছয়তলা থেকে মাটিতে পড়ে গুরুতর আহত হন। পরে তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় শিক্ষার্থীরা উদ্ধার করে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ফয়সাল মাহমুদ সুপ্ত : ট্রাক মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে জামালপুরে নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ফয়সাল মাহমুদ সুপ্ত নিহত হয়েছেন। তিনি শহরের বকুলতলা এলাকার হস্তশিল্প ব্যবসায়ী নিজাম উদ্দিনের ছেলে এবং নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইঞ্জিনিয়াররিং বিভাগের পঞ্চম সেমিস্টারের ছাত্র।

জানা গেছে, চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে জামালপুর জেলা শহরের দিকে আসার সময় শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজের সামনে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাকের সঙ্গে মোটরসাইকেলটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই সুপ্ত নিহত হন। এসময় গুরুতর আহত হন আরেক মোটরসাইকেল আরোহী সিজান।

ফাহিম রাফি : রাজধানীতে নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ফাহিম রাফি নিহত হয়েছেন। তিনি ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন নাকি অন্যকোনভাবে নিহত হয়েছেন এনিয়ে রহস্য রয়ে গেছে। তার থুতনিতে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। শুক্রবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাতে খিলগাঁওয়ের খিদমাহ হাসপাতালে তাকে অচেতন অবস্থায় পাওয়া যায় রাফিকে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর রাত সাড়ে ১০টার দিকে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত রাফির শিক্ষার্থীর বাবা টেলিটকের কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান জানান, রাফি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের তৃতীয় সেমিস্টারের ছাত্র ছিলেন। পরিবারের সঙ্গে তিনি দক্ষিণ বাসাবোর ১৪ নম্বর বাসার তৃতীয় তলায় থাকতেন। শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে তিনি বাসা থেকে বের হন। রাত সাড়ে ৮টার দিকে সর্বশেষ বাবার সঙ্গে কথা হয় তার। ওই সময় রাফি তার বাবাকে জানান, হাতিরঝিল এলাকায় রয়েছেন। এর মাত্র ১৫ মিনিট পর রাফির মোবাইল ফোন নম্বর থেকে তার বাবার মোবাইল ফোনে কল যায়। অচেনা কেউ জানান, তার ছেলে অচেতন অবস্থায় খিদমাহ হাসপাতালে রয়েছেন। খবর পেয়ে পরিবারের সদস্যরা দ্রুত সেখানে যান। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, অচেতন অবস্থায় রাফিকে কেউ ভর্তি করেছে। তিনি বাসের মধ্যে পড়ে গিয়ে আহত হন বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়। পরে চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

কাজী সিরাত : আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের (আইআইইউসি) ছাত্র কাজী সিরাত ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত হয়েছেন। ৩০ জুলাই (সোমবার) এ ঘটনা ঘটে। নিহত কাজী সিরাত বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ছাত্র ছিলেন। সহপাঠীদের ভাষ্যমতে, নানার মৃত্যুর খবর পেয়ে সে বাড়ির উদ্দ্যেশে রওনা হয়।

তাড়াতাড়ি যাওয়ার জন্য সে রেললাইন হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেইন গেইন যাচ্ছিলো। যাওয়ার পথে সে ফোনে কথা বলছিল এবং খুব টেনশনে ছিল। ট্রেন আসতে দেখে আশেপাশের লোকজন তাকে সরে যেতে ডাকাডাকি করেছিল কিন্তু সে শুনতে পায়নি। দ্রুতগতির ট্রেনটি তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সায়েন্স ফ্যাকাল্টি থেকে ওমর হলের পেছন পর্যন্ত টেনে নিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

মাসুদ রানা : রাজধানীর মিরপুরে গত ২ জুলাই (সোমবার) বাসের ধাক্কায় প্রাণ গেছে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজির-বিইউবিটি ছাত্র মাসুদ রানার। মিরপুর চিড়িয়াখানা সড়কের ঈদগাহ মাঠ মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। মাসুদ রানা বিইউবিটির বিবিএ ডিপার্টমেন্টের ৩০তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের। তিনি ঢাকা উত্তর মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ছিলেন।

রিফাত আহমেদ : সিটি ইউনির্ভাসিটির স্নাতক (সম্মান) ইংরেজি বিভাগের ছাত্র রিফাত আহমেদ নিহত হয়েছেন ২৮ মে। তিনি পরিবারের কাছে বায়না করেছিলেন মোটরসাইকেল কিনে দিতে। নয়তো তিনি আত্মহত্যা করবের। এমন কথা শুনে তাকে মোটরসাইকেল কিনে দেয়া হলো। এটাই তার জীবনে কাল হয়েছে। সেই মোটরসাইকেলেই প্রাণ গেল রিফাতের। রিফাত আহমেদ শ্রীপুর পৌর এলাকার বেড়াইদেরচালা গ্রামের আলহাজ ধনাই বেপারী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক রুহুল আমিনের ছেলে।

জানা গেছে, গত ২৬ মে (শনিবার) গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার ২ নম্বর সিঅ্যান্ডবি বাজার এলাকায় একটি রিকশাকে পেছন থেকে ধাক্কা দিয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ছিটকে পড়েন রিফাত। রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৮ মে তার মৃত্যু হয়।

আলমগীর হোসেন : বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সবেমাত্র ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করে বেরিয়েছিলেন তিনি। একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি নিয়েছিলেন। দিনগুলো কেটে যাচ্ছিল বেশ ভালোভাবেই। একটি দুর্ঘটনা তার সবকিছু কেড়ে নিয়েছে। চলে গেছেন না ফেরার দেশে। ট্রেনের ধাক্কায় নিহত হয়েছেন তিনি। নিহত ওই ছাত্রের নাম আলমগীর হোসেন। তিনি ইউনিভার্সিটি অব ইনফরমেশন টেকনোলজি এন্ড সাইন্সেস (ইউআইটিএস) এ পড়াশোনা করেছেন। তার বাড়ি ফুলপুর পৌসভার দিউ গ্রামে। তার অকাল মৃত্যুতে এলাকায় শোক বইছে।

জানা যায়, উপজেলার দিউ গ্রামের কলেজ রোড এলাকার আলমগীর হোসেন (৩০) কিছু দিন আগে ইউআইটিএস থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পাশ করে ঢাকার একটি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে চাকরি শুরু করেন। তিনি মঙ্গলবার ছুটিতে বাড়ি এসেছিলেন। শুক্রবার (২৩ নভেম্বর) দুপুরে বাড়ি থেকে কর্মস্থলে ফেরার পথে খিলগাঁও রেলক্রসিংয়ে একটি দ্রুতগামী ট্রেন তাকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হন। তার মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। শনিবার দুপুরে তার লাশ বাড়িতে পৌঁছলে পরিবারে শোকের মাতম চলে। শনিবার (২৪ নভেম্বর) রাতে ফুলপুর ডিগ্রি কলেজ মাঠে নামাজে জানাজা শেষে তার দাফন কাজ সম্পন্ন হয়।

রাব্বি : মোটরসাইকেলে করে ঢাকায় আসার পথে প্রাণ হারিয়েছেন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র রাব্বি। ২৪ নভেম্বর (শনিবার) মাগুরায় যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় তিনি নিহত হয়েছেন। তিনি আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের ছাত্র ছিলেন। এসময় তার সঙ্গী আশিকুর রহমান দীপ্ত নামে অপর আরোহি গুরুতর আহত হয়েছেন। মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসাধিন আশিকুর রহমান দিপ্ত জানান, তারা মোটরসাইকেলে করে যশোর থেকে ঢাকায় যাচ্ছিলেন। পথে মাগুরা-যশোর সড়কের শেখপাড়া এলাকায় বিপরীত দিক থেকে ছুটে আসা একটি যাত্রিবাহি বাস ধাক্কা দিলে তারা মটর সাইকেল নিয়ে নিয়ে পড়ে যান। পরে তাদের মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হলে কিছুক্ষণ পর রাব্বি মারা যান। নিহত রাব্বি যশোরের পালবাড়ি এলাকার ইদরিস আলির ছেলে।


ঢাকা, ২৬ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।