ঠাকুরগাঁওয়ের লাহিড়ীতে হতদরিদ্রদের পাশে ইসিএল


Published: 2020-05-16 20:26:30 BdST, Updated: 2020-09-20 00:57:34 BdST

ঢাবি লাইভ : করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) জনিত মহামারীতে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের সংগঠন এডুকেশন সার্কেল অব লাহিড়ী (ইসিএল) "একটুখানি মানবতা" নামক প্রজেক্টের মাধ্যমে ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার লাহিড়ী অঞ্চলের ১৩২ টি হতদরিদ্র পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন।

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার লাহিড়ী বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ও লাহিড়ী অঞ্চলের বিভিন্ন স্কুলের সাবেক শিক্ষার্থী যারা বর্তমানে পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনা করেন তাদের নিয়ে ২০১৮ সালের ডিসেম্বর মাসে গড়ে উঠেছে এডুকেশন সার্কেল অব লাহিড়ী (ইসিএল)।

ইসিএল এর সভাপতি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আরিফ হাসান ক্যাম্পাসলাইভ২৪ কে বলেন, প্রথম ধাপে আমারা ৬০ টি হতদরিদ্র পরিবারের মাঝে উপহার সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছি এপ্রিল মাসের ১৬ তারিখে। উপহার সামগ্রীতে ছিল ৫ কেজি চাল, ১ টি লাইফবয় সাবান,২ কেজি আলু, আধা কেজি মসুর ডাল, আধা লিটার সয়াবিন তেল। এসব সামগ্রী দেওয়া হয় লাহিড়ী অঞ্চলের ১৫ টি গ্রামের হত দরিদ্রদের মাঝে।

সংগঠনের সহসভাপতি বুয়েটের শিক্ষার্থী জোতির্ময় সিংহ বলেন, প্রথম ধাপ শেষ হওয়ার পর আমরা দ্বিতীয় ধাপে কাজ করা শুরু করি। এক্ষেত্রে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইআইটির "ফাইট ফর লাইফ" প্রজেক্টের মাধ্যমে এবং বুয়েট ব্যাচ'১৮ থেকে সংগঠনের এই কাজে সহযোগীতা পাই। আর বেশির ভাগ টাকা মূলত সবার নিজ নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের বন্ধু, সিনিয়র, ডিপার্টমেন্ট থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, এরপর দ্বিতীয় ধাপে আরও ৩৫,০০০ টাকা উত্তোলন করতে পেরেছি। আর পবিত্র মাহে রমজানের শেষ রোজাগুলোর ইফতার, সাহরি এবং ঈদুল ফিতর কে সামনে রেখে আরো ৭২ টি পরিবারের মাঝে উপহার সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেই। উপহার সামগ্রীর মধ্যে আছে ৫ কেজি চাল, আধা লিটার তেল ও ২ কেজি আলু।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ফোরকান মিঞা জানান, আমরা এরপর কিছু গরিব মেধাবী শিক্ষার্থীকে খুঁজে করোনার সময়টায় মেধাবৃত্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এখন বৃত্তি সংক্রান্ত আমাদের কার্যক্রম অব্যহত আছে।

ঢাকা, ১৬ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এম আর//এআইটি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।