খুলনায় বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের সেমিনার ও সংবর্ধনা


Published: 2019-06-06 21:35:45 BdST, Updated: 2019-06-19 15:37:34 BdST

মো. ইকবাল হোসেন, কয়রা, খুলনা: খুলনা জেলার দক্ষিণাঞ্চল কয়রা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ঢাকাসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের দিক-নির্দেশনামূলক সেমিনার ও কৃতি সংবর্ধনা আজ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শিক্ষা সম্প্রসারণে প্রতি বছর ঢাকাসহ অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে উৎসাহ, উদ্দীপনা ও দিক-নির্দেশনামূলক বিভিন্ন সেমিনার ও আলোচনা সভার আয়োজন করে শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ার গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

বৃহস্পতিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র-ছাত্রী সংগঠন-ডুসাক এর শিক্ষার্থীরা ৯ম দিক- নির্দেশনামূলক সেমিনার ও কৃতি সংবর্ধনা -২০১৯ আয়োজন করেন। আব্দুর রহিমের সঞ্চালনায় এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কয়রা-পাইকগাছা-০৬ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আখতারুজ্জামান বাবু, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কয়রা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এস. এম শফিকুল ইসলাম, কয়রা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিমুল কুমার সাহা।

এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসী বিভাগের চেয়ারম্যান ড. সীতেশ চন্দ্র বাছাড়, আরবি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক জনাব ড. মিজানুর রহমান এবং ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের লেকচারার মো. জাহিদুল ইসলাম সানা ও মো.তাছিম বিল্লাহ, সিনিয়র জজ, সিলেট এবং চুয়াডাঙ্গা সদরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো.আবুল বাশার সোহেল প্রমুখ।

অনুষ্ঠানটি চারটি ধাপে সম্পন্ন হয়। প্রথমত ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের কুইজ টেস্ট গ্রহণ, দ্বিতীয়ত
বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ক আলোচনা।

তৃতীয়ত প্রধান ও বিশেষ অতিথিবৃন্দদের উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি বিষয়ক দিক-নির্দেশনামূলক গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা এবং শেষে কুইজ টেস্টের ফলাফল ঘোষণা, পুরস্কার বিতরণ ও কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদানের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

কয়রা উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এস. এম শফিকুল ইসলাম বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা আগামীতে দেশ ও জাতির কর্ণধার। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের এমন একটি মহত উদ্যোগকে তিনি সাধুবাদ জানান। সাথে সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের পড়াশোনায় তাঁর সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে বলে তিনি আশ্বস্ত করেন।

কয়রা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি এবং জীবনে বড় হতে হলে স্বপ্ন দেখতে হবে। আর সেই স্বপ্নকে বাস্তব রূপ দিতে অধ্যবসায়ী, পরিশ্রমী এবং নিয়মিত বই পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে।

এমপি আখতারুজ্জামান বাবু শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি বিষয়ক বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন। তিনি বলেন, ছাত্রজীবনে চারটি বিষয় মেনে চললে সফলতা অবশ্যই আসবে। এক. সৃষ্টিকর্তা ও তাঁর বার্তাবাহকদের পথ অনুসরণ করে সৎ, ন্যায় ও মানবিক গুণাবলি সম্পন্ন সুশিক্ষিত হওয়া।

দুই. ক্যারিয়ার গঠনে পিতা-মাতার আদেশ-উপদেশ মেনে চলা। কারণ পিতা-মাতা সন্তানকে উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করতে তাদের সর্বস্ব বিলিয়ে দেন। তিন. নবাব সিরাজ-উদ-দৌল্লা এর পরাজয় থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে স্বদেশ রক্ষা ও দেশ প্রেমে জাগ্রত হতে হবে।

চার. বিখ্যাত ব্যক্তিবর্গ যেমন: রাসূল (সা:), রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, কাজী নজরুল
ইসলাম প্রমুখ মহৎ ব্যক্তিদের জীবনী থেকে আদর্শ গ্রহণ করে জাতি, ধর্ম, বর্ণ-নির্বিশেষে মানবিক গুণাবলিতবে গুণান্বিত হতে হবে।

তিনি আরো বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের উচ্চ শিক্ষা গ্রহণে তাঁর সামগ্রিক সাহায্য- সহযোগিতা সর্বদা অব্যাহত থাকবে। দেশ ও জাতি গঠনে ঢাকা ও অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অগ্রণী ভূমিকা রাখুক এমনই তিনি প্রত্যাশা করেন।

উল্লেখ্য ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে কয়রা উপজেলা থেকে ঢাকা, খুলনা, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ও অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্সপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মাঝে কৃতি সংবর্ধনা প্রদান করে ডুসাক এবং তা শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেন প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য বিশেষ অতিথিবৃন্দ।

ঢাকা, ৬ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।