''সরকার একটার পর একটা ঘটনা ভুলিয়ে দিতে চায়''


Published: 2020-10-12 23:56:53 BdST, Updated: 2020-10-29 02:34:25 BdST

উৎসব মোসাদ্দেকঃ সরকার যেভাবে ভাবে জনগণ সবসময় ঠিক সেভাবে ভাবেন না। মানুষ চায় ন্যায়বিচার। সরকার একটার পর একটা ঘটনা ভুলিয়ে দিতে চায়। তবে আমাদের সামষ্টিক স্মৃতিতে সেগুলো জ্বলজ্বল করে।

বিশ্বজিৎ-আবরার থেকে মেজর সিনহা হত্যাকান্ড। বেগমগঞ্জেরও আগে ঠিক নোয়াখালিতে ধানের শীষে ভোট দেয়ায় আ.লীগ নেতা দেলোয়ার ধর্ষণ মামলায় অভিযুক্ত। এখন জানা যাচ্ছে, দেলোয়ার জামিনে আছেন। আজকে সিলেটে পুলিশ হেফাজতে নির্যাতনে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এখানে মাত্র কয়েকটি ঘটনার উল্লেখ করলাম।

হাজারটা ঘটনা উল্লেখ করা যাবে। তার দরকার নেই। এইসব ঘটনায় গৃহীত ব্যবস্থায় জনমানুষের আস্থা নাই। তাই ধর্ষণের সাজা মৃত্যুদন্ড করেন, শূলে চড়ান বা বাসদের নেতা বজলুর রশিদ ফিরোজ ভাইয়ের দাবি মেনে প্রকাশ্যে ফাঁসি দিয়েও মানুষের আস্থা ফেরাতে পারবেন না।

তাহলে? ঢাবি ছাত্রলীগ নেতা সঞ্জয়ের চিন্তা তার ব্যক্তিগত নয়। এইটা আওয়ামী চিন্তা পদ্ধতি। এখন আন্দোলনকারীরা রাজপথ থেকে সরে না গেলে ছাত্রলীগ-পুলিশ দিয়ে পিটিয়ে উঠিয়ে দেয়ার ক্ষমতা তো আপনাদের আছেই, এইটা ভাবছেন তো? এটাও যদি ভাবেন অসুবিধা নাই।

সরকারি বেসরকারি পেটোয়া বাহিনী সকল স্বৈরশাসক লেলিয়ে দিয়েছে। হত্যার চেষ্টা করেছে। তাতে ভয় পেয়ে ১৯৫২-২০২০ পর্যন্ত কেউই আন্দোলন গুটিয়ে নেয়নি। জনগণ তো কখনও ঘোষনা দিয়ে বা না দিয়ে আন্দোলন করেই চলেছে। কারন এছাড়া তাদের উপায় নেই আর বাংলাদেশের রাজনৈতিক-অর্থনৈতিক সকল অর্জন রাজপথ থেকেই প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

সুতরাং ধর্ষণ বিরোধী আন্দোলন, ব্যবসায়ীকরন বিরোধী আন্দোলন, নিরাপদ সড়ক আন্দোলন এরকম অধিকার আদায়ের আন্দোলন চলতেই থাকবে। আওয়ামীলীগ জনগণের এই চাওয়াকে মূল্যায়ন করলে আখেরে সেটা তাদের জন্য ভালো হবে।

অন্যথায় কী হবে সেটা অতীত বা নিকট অতীতের ইতিহাস পাঠ করলে যে কেউ সহজেই বুঝতে পারবেন। সারাদেশে যে যেখানে ধর্ষন বিরোধী আন্দোলন করছেন সকলের প্রতি সংহতি জানাচ্ছি। ন্যায়বিচারের আন্দোলনের মতো সঠিক সুন্দর আন্দোলন বিরল।

উৎসব মোসাদ্দেক
সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা
বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন

ঢাকা, ১২ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।