নারী!


Published: 2019-12-01 23:33:12 BdST, Updated: 2019-12-07 04:59:37 BdST

মাহমুদুল হাসান জসীমঃ সৃষ্টির পুরোটা সৌন্দর্যই খেলা করে বোধহয় প্রকৃতি ও নারীতে। পুরুষের জীবনে যতটা পূর্ণতা / অপূর্ণতা তাও বোধহয় নারীত্বের জন্যই। নারীর জীবন যতটা না বৈচিত্র্যময়, তারচেয়ে বেশী অনিশ্চয়তায় ভরপুর।

আমাদের সমাজ ব্যবস্থা এখনো নারী জন্মকে খুব বেশী সাধুবাদ জানাতে পারেনি মনেহয়। ক্রমাগত বেড়ে উঠে নানাবিধ সমস্যার মধ্য দিয়ে৷ বেড়ে উঠার সাথে পাল্লা দিয়ে বেড়ে উঠে সমস্যাটাও এবং, সমাজ ব্যবস্থার নৈতিক স্খলন বোধহয় এখনে আরও রসদের যোগান দেয়।

শত অনিশ্চয়তায় বেড়ে উঠা নারী, মাঝ বয়সে কখনো আর কম বসয়ে বিয়ে নামক শৃঙ্খলায় আবদ্ধ হয়ে গৃহান্তরিত হয়৷ প্রকারান্তরে খানিকটা গৃহবন্দীও বটে।

নতুন পরিবেশ, নতুন অবয়ব, ছেলেটাও (জামাই) যদি হয় শুধু মাত্র বিয়ে মারফত পরিচিত। এর চেয়ে বড় আপদ নারীর জীবনে আর কি হতে পারে! নিজেকে নতুন পরিবেশে মানিয়ে নেওয়ার চেয়ে, যোগ্য বলে প্রমাণ করার চেষ্টা করতে হয় ক্রমাগত।

বিজ্ঞান যতটা জানি, আল্লাহ তা'লার পর সন্তান ছেলে বা মেয়ে হবে, তা নির্ভর করে বাবার সেক্স ক্রোমোজমের উপর। আমাদের সমাজে নারী সন্তান প্রসব করবার পর, যদি তা মেয়ে হয়। তবে বেশীরভাগ পরিবারেই আড়চোখে তাকানো হয় নারীর দিকেই।

তারপর, আবার আর একটা নারী।
আর একটা অনরূপ গল্প.....
একটা চক্রাকার গল্প।
তবে, উদাসী বা সন্নাসী পুরুষ দিন শেষে কোন নারীর আচলেই নিজের পূর্ণতা খোঁজে পায়। এটাই নারীত্বের পরম স্বার্থকতা মনেহয়।

মাহমুদুল হাসান জসীম
শিক্ষার্থী,
জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়।

ঢাকা, ০১ ডিসেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।