ভর্তিচ্ছুরা যে কারণে নোবিপ্রবিকে বেছে নিতে পারেন


Published: 2018-09-20 15:01:44 BdST, Updated: 2019-06-25 00:16:12 BdST

আমিনুল মহিম: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা শেষ হলেও বাকি আছে আরো বেশ কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা। বাকি বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর ভর্তি পরীক্ষাও দরজায় কড়া নাড়ছে। তাই ভর্তিচ্ছুদের হাতে সময় বেশি নেই।

বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর জন্য ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি এখন পুরোদমে চলছে। প্রস্তুতির পাশাপাশি নিজের যোগ্যতা ও পছন্দ অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয় বাছাই করা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। যা শিক্ষার্থীদের স্বপ্ন পূরণের জন্য সহায়ক হবে। এরমধ্যে যাদের পছন্দের তালিকায় নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ওপরের দিকে তাদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়টি নিয়ে কিছু লোভনীয় তথ্য দিয়ে সাজানো হয়েছে এই লেখাটি। কেন শিক্ষার্থীরা নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়কে বেছে নিতে পারেন তার কয়েকটি কারণ নিচে তুলে ধরা হল...

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় দেশের পাবলিক বিশবিদ্যালয় গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি বিশ্ববিদ্যালয় যা বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর মধ্যে অবস্থানের দিক থেকে ৩ নাম্বার এ রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়টিতে ভর্তির জন্য এটিই প্রথম ও প্রধান কারণ হতে পারে।

তারপর, দেশের অন্যান্য পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সেশনজট শব্দটির সাথে অতিপরিচিত হলেও নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে সেশনজট নেই বললেই চলে।

এছাড়াও এখানে রয়েছে ভর্তির সময় এ্যাপসের মাধ্যমে ঘরে বসে লাইভ ভর্তির আপডেট দেখার সুযোগ। যা এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের হাতেই তৈরি।

অত:পর, যাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার অনেক স্বপ্ন কিন্তু কোন কারণে এইচএসসিতে রেজাল্ট খারাপ হয়ে গেছে তাই বলে ভাবছ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার স্বপ্ন শেষ তাদের জন্য নোবিপ্রবির দরজা খোলা রয়েছে। আপনার এসএসসি এবং এইচএসসি মিলিয়ে মোট জিপিয়ে নুন্যতম ৬.৫ থাকলেই আপনি পরীক্ষা দিতে পারবেন।

এছাড়াও, নোবিপ্রবির হাত ধরেই বাংলাদেশ এন্ড লিবারেশন ওয়্যার স্টাডিজ সাবজেক্টটি বাংলাদেশে চালু হয়েছে।

এখানে রয়েছে মেয়েদের জন্য শতভাগ আবাসন সুব্যবস্থা। এখানকার মেয়েদের জন্য নির্মিত বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব হলটি বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় হলগুলোর মধ্যে অন্যতম।

তারপর, নোবিপ্রবির প্রত্যেকটি ডিপার্টমেন্ট অনেক মানসম্মত। প্রত্যেকটি ডিপার্টমেন্টেই রয়েছে পর্যাপ্ত পরিমাণ শিক্ষক। রয়েছে পর্যাপ্ত শ্রেণীকক্ষ সাথে রয়েছে গবেষণার জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ ল্যাব এর সুব্যবস্থা।

নোবিপ্রবি শিক্ষকের গবেষণা দ্বারা নতুন চারটি অমেরুদণ্ডী প্রানী আবিষ্কৃত হয়েছে। যা দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে খুবই বিরল।

তাছাড়াও, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হলেও এখানে রয়েছে ব্যাবসা ও মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থীদের ভর্তি হওয়ার সুযোগ।

এখানে রয়েছে পড়াশুনার পাশাপাশি বিভিন্ন কো-কারিকুলাম এক্টিভিটিজ যা আপনার মেধার বিকাশে সহায়তা করবে।

সবশেষে আর একটা কথা না বললেই নয় তা হল নোবিপ্রবির সৌন্দর্য। সেটা এখানে এসেই দেখে যাবেন।

ওপরের এই সব গুলো বিষয়ই একটা বিশ্ববিদ্যালয় এর বিশেষত্ব প্রমাণের জন্য যথেষ্টই বলা যায়। তাই যারা নোবিপ্রবি ভর্তির স্বপ্ন লালন করছেন তারা কি পেতে যাচ্ছেন বুঝতেই পারছেন। তাই আর দেরি নয়, নিজের সেরাটা দিয়ে নিজেকে যোগ্য করে গড়ে তুলে নিজের আসনটি পোক্ত করার জন্য প্রস্তুত হতে হবে।

আমিনুল মহিম
শিক্ষার্থী
নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

 

 

ঢাকা, ২০ সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।