ফোকাস অন টাইমিং: গার্লফ্রেন্ডও থাকবে সফলতাও আসবে!


Published: 2018-05-21 19:18:33 BdST, Updated: 2018-06-22 15:17:31 BdST

অভি মহাজন: এক সিনিয়র ভাইকে চিনি যিনি একটি মাল্টি-ন্যাশনাল কোম্পানির অনেক উঁচু পদে আছেন। মাসে প্রায় ৭৫ হাজারের কাছাকাছি স্যালারি। কিন্তু টানা সাত বছর প্রেম করেও ভালোবাসার মানুষটিকে বিয়ে করতে পারেননি।

কারণ তিনি সঠিক সময়ে ক্যারিয়ার গড়তে পারেননি। তিনি ক্যারিয়ার গড়তে গড়তে তার ভালোবাসার মানুষ হয়ে যায় ক্যারিয়ারওয়ালা আরেকজনের। উনার সব থাকলেও অভাব ছিল সঠিক টাইমিংয়ের।

স্কুলজীবনের এক বন্ধুর কথা মনে আছে যে প্রতিদিন ভালোমতো পড়া শিখে আসলেও পরীক্ষায় খুব কম নম্বর পেত। পরীক্ষার হলের তিনটি ঘণ্টায় সে নিজেকে সেরা প্রমাণে ব্যর্থ হতো। এখানেও তার অভাব ছিল টাইমিংয়ের।

শচীন টেন্ডুলকার, ব্রায়ান লারা, জয়াবর্ধনে এদের আমরা সফল ক্রিকেটার বলি। এদের সফলতার পিছনেও কিন্তু একটি জিনিস সবচেয়ে বেশি কাজ করেছে। আর সেটা হলো টাইমিং। সঠিক সময়ে তারা বলকে ব্যাটে লাগাতে পারতো বলেই এরা আমাদের কাছে সেরা।

মেসি বলুন, রোনাল্ডো বলুন প্রতিটি ভালো ফুটবল প্লেয়ারও কিন্তু সেরা তাদের এই টাইমিংয়ের কারণেই। মোটকথা এই পর্যন্ত পৃথিবীতে যারা সেরা হয়েছেন প্রত্যেকেরই সেরা হওয়ার পিছনে সবচেয়ে বড় অবদান কিন্তু এই টাইমিংয়ের।

পৃথিবীতে আপনি যদি দশ জনের মাঝে একজন হতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাকে অবশ্যই টাইমিং কাজে লাগাতে হবে। জীবন একটাই। কি হিসেবে বাঁচবেন তা সম্পূর্ণ নির্ভর করছে আপনার ফোকাস, পরিশ্রম এবং টাইমিংয়ের উপর।

ফোকাস ঠিক রাখুন। নিজের উপর ভরসা রাখুন। নিজেকে সেরা প্রমাণ করতে হবে না। নিজের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সময়গুলোকে সেরা প্রমাণ করুন। আপনাআপনিই সেরা হয়ে উঠবেন।

লেখক : অভি মহাজন
শিক্ষার্থী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

 

ঢাকা, ২১ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।