‘প্রতিটা নারী একজন যোদ্ধা ঘরে এবং বাইরে’


Published: 2018-04-24 22:52:27 BdST, Updated: 2018-10-19 15:53:31 BdST

মীর্জা শ. হাসান: আমি একজন আদশ কর্পোরেট নারীর কথা বলবো, এবং চেষ্টা করবো তিনি কি ভাবে একজন যোদ্ধা এবং কেন । আমি ধরে নিচ্ছি একজন নারী যাকে প্রথমত সংসার চালাতে হবে; দ্বিতীয়ত নিজের এডুকেশান এবং সমাজ নিয়ে বাঁচতে হবে । যার মাথার ওপড়ে কোন ছায়া নেই ।

আর সে নারী সত্যিই একজন যোদ্ধা, তবে তাতে আমি পুরুষকে ছোট করছি না । বরং এমন নারী যেকোন পুরুষের জীবনও আলোকিত করতে পারেন সঠিক ভাবে পাশে থাকলে ।
আমরা যতোই বলিনা কেন, নারী অধিকার এবং সুযোগ – সুবিধা নিয়ে আলোচনা চলছে প্রকৃত অর্থে নারীর কষ্ট, নিরাপত্তা কতোকুটুন বাড়ছে তা বাস্তবতাই প্রমাণ দেবে এবং দিচ্ছে । আজ যখন একটি নারী ঘর থেকে বাহিরে পা রাখছে সে নিরাপদে বাসায় ফিরবে কিনা তা আলোচনার বিষয় ।

এর প্রধান কারণ, শিক্ষার অধ:পতন, নেতৃত্বের অবক্ষয় এবং নিজের আত্মমর্যাদা ভুলে যাওয়া। যদি বলি বাংলাদেশের স্বাধীনতার কথা । ইতিহাস রয়ে গেছে, নারী যে কতো বড়ো এবং পবিত্র অবদান রেখে গেছে তা ইতিহাস সাক্ষী । আমরা ভুলে যাই আগুন যদি সঠিকভাবে ব্যবহার করা না যায় তা ক্ষতির কারন হবেই ।

আমরা যদি নারীদের সঠিক মর্যাদা এবং দিকনির্দেশনা না দিতে পারি, তা হলে আমাদের জন্যই অপমানের বিষয় । আজ আমরা জানি, একজন মা ঘরে সন্তান রেখে, অফিস ডিউটি করে, সমাজিক রীতি মেনে, নানান ঝামেলা সহ্য করে ঘরে ফিরছে । সে নারী সত্যিই একজন যোদ্ধা । তবে সে নারীতে বারবার সম্মান দেবার নাম করে কিছু কিছু উন্নয়ণ সংঘ গড়ে উঠেছে, যারা মূলন নিজেদের ফয়দা আর টিভিতে টকশো করে নাম ফোটানোর জন্য অভিনয় করে থাকে ।

ক্ষণিক সময়ের জন্য কিছু মিটিং সেলফি আর দু-এক’জনের হাতে ক্রেস্ট তুলে দিয়ে কেটে পড়ে । এদের খপ্পর থেকে আমাদের নারী সমাজকে রক্ষা করা প্রতিটা বুদ্ধিমান মানুষের কতর্ব্য । কারন নারী যদি অমর্যাদায় পড়েন তাহলে সে দেশের মাণচিত্র রক্ষা করা যাবে না ।
হ্যা, নারীরাও যে নানান অপরাধের সাথে যুক্ত নেই তা বলবো না, তবে একজন নারী কোনদিনও একা কোন অপরাধ করতে পারে না, হয় কোন বাজে পুরুষের সহযোগিতায় করে নতুবা কোন চরিত্রহীন পুরুষ তাকে দিয়ে অন্যায় করায় ।

তবে একজন নারীর অপরাধের জন্য সমগ্র নারী সমাজ কলুষিতা হোক এটা আমার যুক্তিতে নেই । আজ নারী হোক পুরুষ হোক, নানান নেশা থেকে বাঁচাতে হবে ।

আমি বলবো, জ্ঞ্যান চর্চা করা উচিত প্রতিটা মানুষের । তবে নারীরা তুলনা মূলক ভাবে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষায় শিক্ষিত হলেও এর বাহিরে বিচরণ কম থাকে । এটা কোন ভাবেই উচিত নয় । কারন, এস.এস.সি., এইচ.এস.সি, বিএ, মার্স্টাস... এগুলো কয়েকটি বইয়ের কিছু পৃষ্ঠা পড়ে নির্ধারিত সমযে বিশেষ নিয়মে লিখে দেবার ফলাফল । এটি করে কোনদিনও কোন মানুষ শিক্ষিত আসনে স্থান পেতে পারে না, যদি কেউ দাবী করে সে হয় মানষিক রোগী নতুবা দেখা বিষয়ের ভাবপ্রকাশ বা আবেগ, মিথ্যে আবেগ ।

প্রতিদিন লাইব্রেরিতে আসতে হবে । যেসব বই জ্ঞ্যানের প্রতীক সেগুলো মনদিয়ে পড়তে হবে, তা থেকে গবেষণা করতে হবে ।

আমাদের দেশের নারী সংখ্যাকে যদি মাত্র শতকরা সত্তরভাগ সঠিকভাবে সঠিক পথে শিক্ষিত করা যায়, তাহলে আমাদের বাংলাদেশ আমেরিকা জাপান থেকেও আরো উন্নত দেশে পরিণত হবে । এটা কোন অহংকার না, বাস্তবতা । যে পুরুষ নারীকে লালসার বস্তু হিসেবে নিয়েছে, সে পুরুষ কোনদিনও উন্নতি করতে পারেনি । আর যে নারী বিপথে পা দিয়েছে সে কোনদিনও সম্মানের সাথে টিকতে পারেনি ।

আমাদের একটি স্লোগান মানা উচিত , তাহলো “মেধা দিয়ে উন্নতি করবো নিজেকে বিত্রি করবো না ।”

নিজেকে বিক্রি করতে গেলেই পরের অধীন হতে হবে, তা আমাদের সোভা পায় না । আমাদের হতে হবে আলোকিত, আমরা যখন মারা যাবো পেছনে যেন রেখে যেতে পারি এমন কিছু যাতে করে বাংলাদেশ আরো উজ্জ্ব্যল হয়ে দাঁড়াতে পারে ।

ঘর আলোকিত একজন সুশিক্ষিত নারীর কোন বিকল্প নেই । একজন সুসন্তান গড়ে তোলার ব্যাপরে শিক্ষিত মায়ের কোন বিকল্প আজও আবিষ্কৃত হয়নি, হবেও না । সকর পেশাতে নারকে যেতে হবে তাও ভুল, যে পেশা নাররি মন মানষিকতা এবং শরীর সায়দেয় তাই গ্রহণ করা উচিত ।

নারীর মূল্য দিতে হলে নারীকে আগে বুঝতে হবে । অন্যের দেখা দেখি পত না চল্লেই ভালো । (চলবে ... .. )


লেখক: মীর্জা শ. হাসান
বি .এস.সি এবং এল.এল.বি ( ফাইনাল )
ঢাকা, বাংলাদেশ ।

ঢাকা, ২৪ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।