নি‌জে‌কে অা’লী‌গের সহ-সম্পাদক নয় ঢাবির উপাচার্য ভাবুন!


Published: 2018-04-23 13:37:30 BdST, Updated: 2018-05-24 08:21:13 BdST

উপাচার্য হ‌য়েই অাওয়ামী লী‌গের সহ সম্পাদক হ‌য়ে নি‌জের পদটা‌কে ছোট করলেন। সমা‌লোচনার পর সেই প‌দে গে‌লেন না। উপাচা‌র্যের ক্ষমতা পে‌য়েই নির্দেশ দি‌লেন ৮ টার ম‌ধ্যেই টিএস‌সি বন্ধ। প্রতিবা‌দের মুখে সিদ্ধান্ত বদলা‌তে বাধ্য হ‌লেন। এরপর নি‌র্দেশ দি‌লেন টিএস‌সিতে চা দোকান থাক‌বে না। প্র‌তিবা‌দে সেই নি‌র্দেশও বদলা‌লেন।

এরপর সাত ক‌লে‌জের অা‌ন্দোল‌নে নিপীড়‌নকারী‌দের পক্ষ নি‌লেন।‌ ছাত্রলীগ নেত্রী এশা‌কে ব‌হিস্কার ক‌রে অাবার প্রত্যাহার কর‌লেন। শামসুন্নাহার হ‌লের ম‌তোই ঘটা‌লেন অা‌রেক কল‌ঙ্কিত ঘটনা। ঢাকা বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ের সু‌ফিয়া কামাল হল থে‌কে তিন ছাত্রী‌কে বের ক‌রে অাবার ফেরত অান‌লেন। ঘটনার এতো‌দিন হ‌য়ে গেলেও অাপ‌নি অাপনার বাসভব‌নে হামলাকারী একজন‌কেও খুঁ‌জে পেলেন না।

বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ের ‌শিক্ষার্থী‌দের ব‌লি যে কোন অন্যা‌য়ের বিরু‌দ্ধে দাঁড়া‌নো যেমন অামা‌দের দা‌য়িত্ব তেম‌নি দা‌য়িত্বশীল অাচরণও জরুরী। ঢাকা বিশ্ব‌বিদ্যালয়‌কে রক্ষার দা‌য়িত্ব অামা‌দের সবার।

ত‌বে স্যার অাপনা‌কে ব‌লি, অাপ‌নি উপাচার্য হওয়ার এক বছরের ম‌ধ্যে ঢাকা বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ে যা যা ঘট‌ছে এবং যেভা‌বে প্র‌তি‌দিন সকাল বিকাল অাপ‌নি সিদ্ধান্ত দেন অার বদলান তা‌তে ঢাকা বিশ্ব‌বিদ্যালয় শুধু অশান্ত হ‌য়ে উঠ‌ছে তাই নয় এই বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ের মান মর্যাদা নি‌য়েও প্রশ্ন উঠে‌ছে।

স্যার অাপনাকে ‌কিছু বল‌লে অাপনার সমর্থকরা বল‌বে সা‌বেক উপাচার্য অা‌রে‌ফিন স্যারের প্র‌তি অামা‌দের পক্ষপাত অা‌ছে। অা‌মি শুধু বল‌বো অা‌রে‌ফিন স্যারের ভা‌লো গুণগু‌লো অনুসরণ করুন। ম‌নে রাখ‌বেন, কথায় কথায় সাংবা‌দিক‌দের অাপনার সমর্থকরা প্র‌তি‌দিন গা‌লি দি‌তো, অথচ সেই সাংবা‌দিকরাই অাপনা‌কে রক্ষা ক‌রে‌ছে।

অা‌রেকটা কথা, স্যার ঢাকা বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ের সা‌বেক ছাত্র হি‌সে‌বে ব‌লি, প্র‌তি‌দিন সকাল বিকাল সিদ্ধান্ত না বদ‌লে যা কর‌বেন একটু ভে‌বে‌চি‌ন্তে কর‌বেন। নি‌জে‌কে অাওয়ামী লী‌গের সহসম্পাদক না ভে‌বে ঢাকা বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ের উপাচার্য ভাবুন। এই প‌দের মর্যাদা বুঝুন।

স্যার দয়া ক‌রে তারুণ্য‌কে অাপনার প্র‌তিপক্ষ বানা‌বেন না। স্যার ম‌নে রাখবেন শ‌ক্তি দি‌য়ে কখ‌নো ঢাকা বিশ্ব‌বিদ্যাল‌য়ের ছাত্র‌দের ন্যায্য দা‌বি ঠে‌কি‌য়ে রাখা যায়‌নি। অার মনে রাখবেন ছাত্র-ছাত্রীরা আছে বলেই আপনারা অা‌ছেন। কা‌জেই নিজে‌দের শাসক না ভে‌বে অ‌ভিভাবক হন। ছাত্রবান্ধব হন, হন তারুণ্যবান্ধব। জা‌তির বি‌বেক‌ অামাদের শিক্ষক‌দের জন্য শুভ কামনা।

শরিফুল হাসান
সাংবাদিক ও সাবেক শিক্ষার্থী
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
[ফেইসবুক থেকে নেয়া]

ঢাকা, ২৩ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।