মদন উপজেলায় গ্যাসের সন্ধান


Published: 2020-07-10 21:18:37 BdST, Updated: 2020-08-07 00:27:30 BdST

নেত্রকোনা লাইভ: এবার আবারো গ্যাসের সন্ধান মিলেছে। প্রাকৃতি গ্যাস একটি সম্পদ। আর এই সম্পদের সন্ধান মিলেছে নেত্রকোনা জেলার মদন উপজেলার সদর ইউনিয়নের কুলিয়াটি (আরগিলা) গ্রামে। জানাগেছে অগভীর নলকূপ বসাতে গিয়ে প্রাকৃতিক গ্যাসের সন্ধান পেয়ে প্রশসানকে জানিয়েছে এলাকাবাসী।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. বুলবুল আহমেদ জানান, গ্যাসের সন্ধান মিলেছে এমন খবরের প্রেক্ষিতে সরেজমিন পরিদর্শন করেছি। বাপেক্স এর মহা-ব্যবস্থাপক মো. আলমগীর হোসেনের নেতৃত্বে একটি দল এসেছিল তারা গ‍্যাসের নমুনা সংগ্রহ করে নিয়ে এসেছে। পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য ঢাকায় নিয়ে গেছে।

সংশ্লিস্টরা জানায়, ৯ জুলাই উক্ত কুলিয়াটি গ্রামের বিলকিস বেগমের বাড়িতে অগভীর নলকূপ বোরিং শেষে পাইপের গোড়ায় টিউবয়েল বডি স্থাপনের সময় পাইপ দিয়ে বুদবুদ শব্দে আসতে থাকে। প্রথমে তারা ভয় পেয়ে যায়। পরে এক দরণের ধোঁয়া বের হতে শুরু হয়। টিউবয়েল স্থাপন কাজে নিয়োজিত মিস্ত্রী মিলন মিয়া বিষয়টি পরীক্ষার জন্য দিয়াশলাই ঠুকে দিতেই আগুন জ্বলে ওঠে।

এদিকে ওই বাড়ির মালিক বিলকিছ খানম জানান , ১৮০ ফুট পাইপ বোরিং করতে আটকে যায়। পরে গোবর ও মাটি দিয়ে ২৭০ ফুট পাইপ বসানো হয়েছে। বসানোর পর থেকে বুদ বুদ শব্দ হলে কলের মাথাটি কাগজ দিয়ে মুড়িয়ে রাখি। পরে দেখি কাগজটি ফুলে যাচ্ছে । লোকজন বলছে এই টিউবয়েলে গ্যাস আছে দিয়াশলাই দিয়ে আগুন দিলেই জ্বলে উঠছে।

সেই থেকে পাইপের গোড়ায় একটি সরু পাইপ স্থাপন করে গ্যাসের আগুন জ্বালিয়ে রাখা হয়েছে। সতর্কতার জন্যে এই ব্যবস্থা নেয়া হয়। তিনি বলেন, আমরা আজ নিয়ে দু’দিন এ গ্যাস দিয়ে রান্না করছি।

ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে প্রতিদিন উৎসুক জনতা টিউবেলের গ‍্যাস নিষ্সরণ দেখতে উক্ত গ্রামে ভিড় জমাচ্ছে। কেউ ছবি তুলে রাখছে। কেউবা সেলফি তুলছে। আবার কেউ কেউ আগুন লিভিয়ে পুনরায় তা জ্বালিয়ে দেখছেন।

সদর ইউপি চেয়ারম্যান বদরুজ্জামান শেখ মানিক বলেন, লোকমুখে ঘটনাটি জানতে পেরে নিজেও দেখতে গিয়েছিলাম। আমারা মনে করি, প্রশাসন এ ব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ নিলে ভাল হয়। বিষয়টি পরীক্ষা-নিরীক্ষার করে ব্যবস্থা গ্রহণ প্রয়োজন বলেও তিনি মনে করেন।

মদন থানার অফিসার ইন চার্জ মো. রমিজুল হক জানান, ঐ বাড়ির লোকজন ও গ্রামবাসীকে সতর্কতা নির্দেশনায় বলা হয়েছে, কোনো বিশেষজ্ঞ দল না আসা পর্যন্ত নলকূপটি নিরাপদ অবস্থায় রাখার জন্য। এখন নলকূপটি সরাতে গেলে অতিমাত্রায় আগুন জ্বলে সেটির বিস্ফোরণও হতে পারে। নলকুপটি ব্যবহার না করতেও বলা হয়েছে।

বাপেক্স এর মহা-ব্যবস্থাপক আলমগীর হোসেন জানান, শুক্রবার আমরা ৪ সদস্যের একটি দল, ঘটনা স্থলে গিয়ে ছিলাম। গ‍্যাসের নমুনা ল্যাবে পরীক্ষা নিরীক্ষার জন‍্য নিয়েছি। তবে এখানে যে গ্যাসটি উৎপত্তি হয়েছে প্রেসার অনেক কম। বিভিন্ন জৈব্য পদার্থ থেকে এমন গ‍্যাস উৎপন্ন হতে পারে।

ঢাকা, ১০ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এআইটি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।