নাটোরে নমুনা দিয়ে ঢাকায় ফেরা ২ জনের করোনা পজিটিভ


Published: 2020-06-04 11:00:00 BdST, Updated: 2020-07-04 22:05:59 BdST

লাইভ প্রতিবেদকঃ সাধারণ ছুটি শেষ হওয়ায় ধিরে ধিরে সবকিছু খুলে যাচ্ছে। এর ফলে গ্রাম থেকে নানা প্রান্ত থেকে আবারও মানুষ ছুটছে ঢাকায় তাদের কর্মস্থলে। এ অবস্থায় নাটোরের বড়াইগ্রামে নতুন করে ২ জনের দেহে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্ত দুজনই পুরুষ। এদের একজনের বয়স ৩২ এবং অপর জনের ২৬।

আক্রান্ত দু’জনই বর্তমানে ঢাকার কর্মস্থলে অবস্থান করছেন। নমুনা দিয়েই তারা তাদের কর্মস্থল ঢাকায় চলে গেছেন। আক্রান্তদের একজন অ্যাপোলো হাসপাতালে এবং আরেকজন গাজীপুরের কোনাবাড়ির মন্ডল গ্রুপের একটি ইলেক্ট্রনিকস কারখানায় কর্মরত।

জানা গেছে, ঈদের ছুটিতে বাড়িতে আসার পর গত ৩০ মে পরীক্ষার জন্য তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরে বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ল্যাব থেকে তাদের করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়।

এ নিয়ে জেলায় একজন শিশুসহ মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৬০ জনে। এদের মধ্যে ১১ জন ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। আর করোনা পরীক্ষার ফল আসার আগেই মৃত্যু হয়েছে একজনের।

এ বিষয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস বলেন, হাসপাতালের ল্যাবে বুধবার ৯৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তার মধ্যে পাঁচটি পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে নাটোরের বড়াইগ্রামের দুইজন এবং রাজশাহীর তিনজন রয়েছেন।

সিভিল সার্জন ডা. মিজানুর রহমান নতুন করে দুই জনের পজেটিভ রেজাল্ট পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আক্রান্তদের বাড়ি বড়াইগ্রাম উপজেলায়। তারা ঢাকায় কর্মরত। ঈদের ছুটিতে বাড়ি আসে এবং জ্বর-সর্দির কারণে তারা ৩০ মে নমুনা দেয়। বুধবার রাত ১০টার দিকে রেজাল্ট আসে। প্রথমে ফোনে এবং পরে ইমেইলের মাধ্যমে আসে।

পরে ঈদের ছুটি শেষ হওয়ায় রেজাল্ট আসার আগেই আক্রান্তরা ঢাকায় তাদের নিজ নিজ কর্মস্থলে ফিরে গেছেন। তবে আক্রান্তরা যেহেতু তাদের পরিবারে সঙ্গে কয়েকদিন ছিলেন তাই তাদের বাড়ি লকডাউন করতে স্থানীয় প্রশাসনকে বলা হয়েছে। সেই সঙ্গে আক্রান্তদের কর্মস্থলসহ তাদের এ বিষয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ঢাকা, ০৪ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।