করোনায় অসহায় মানুষের পাশে ‘চুমকি আপা’


Published: 2020-05-22 03:58:20 BdST, Updated: 2020-05-26 09:36:15 BdST

সবুজ মিয়া, কালীগঞ্জ লাইভঃ কখনো অভূক্তদের জন্য খাবার কখনো বা অসুস্থ মানুষের জন্য চিকিৎসা সেবার ব্যবস্থা করছেন তিনি। রাত-দিন ছুঁটছেন মানুষের দুয়ারে। বাড়িয়ে দিচ্ছেন সহযোগিতার হাত। করোনাকালে গাজীপুর-৫ (কালীগঞ্জ) নির্বাচনী এলাকার মানুষের জন্য এমন সেবা দিয়ে যাচ্ছেন মেহের আফরোজ চুমকি। তিনি স্থানীয় সাংসদ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির মহিলা বিষয়ক সম্পাদক, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং ওই মন্ত্রণালয়ের সাবেক প্রতিমন্ত্রী।

দেশের এই করোনা পরিস্থিতিতে স্থানীয় মানুষের সেবায় এখনও তিনি প্রাণবন্ত। করোনায় স্থবির হয়ে পড়া মানুষের জীবনে গতি আনতে তিনি তাঁর নির্বাচনী আসনের প্রতিটি ইউনিয়ন, পৌরসভা, ওয়ার্ড ও গ্রামে গ্রামে অবিরাম ছুটে চলছেন। আর তাঁর এই প্রচেষ্টায় খুশি স্থানীয় সকল শ্রেণি পেশার মানুষও।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, করোনাদুর্গত নিম্নআয়ের প্রকৃত অভাবী মানুষের তালিকা করে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিচ্ছেন কালীগঞ্জের শান্তিকন্যা আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী সকলের প্রিয় ‘চুমকি আপা’। সারাদিন ত্রাণ বিতরণেই ক্ষ্যান্ত হন না। রাতে বাসায় ফিরে স্থানীয় নেতৃবৃন্দের কাছে খোঁজ খবর নেন তৃণমূল পর্যায়ের মানুষেরও।

করোনার প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই নিম্নআয়ের মানুষের বাড়ি বাড়ি চাল-ডালসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন জাতীয় বীর, আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা পরিচালনা কমিটির আহবায়ক শহীদ ময়েজউদ্দিন আহমেদের কন্যা মেহের আফরোজ চুমকি এমপি। দেশের বিভিন্ন জায়গায় যখন ত্রাণ বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ আসছে তখন কালীগঞ্জে ত্রাণ বিতরণে নজির সৃষ্টি করেছেন তিনি। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি, জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরামর্শ অনুযায়ী স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগসহ সকল সহযোগী সংগঠনকে সঙ্গে নিয়ে ত্রাণ বিতরণের এই কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন মেহের আফরোজ চুমকি এমপি। ত্রাণ ও নগদ অর্থ বিতরণে স্বচ্ছতা এবং জবাবদিহিতা নিশ্চিতে তাঁর নির্বাচনী আসনের প্রতিটি ওয়ার্ডে কমিটি গঠন করে কার্যক্রম পরিচালনা করছেন তিনি।

উপজেলা প্রশাসন ও দলীয় সূত্রে জানা গেছে, মেহের আফরোজ চুমকি এমপি’র ব্যক্তিগত অর্থায়নে এখন পর্যন্ত ৪০ হাজার ৫শ পরিবারকে ত্রাণ সহায়তা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া তাঁর আহবানে সাড়া দিয়ে স্থানীয় নেতৃবৃন্দের ব্যক্তিগত তহবিল থেকে কর্মহীন হয়ে পড়া হাজার হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা ও নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ-তহবিল থেকে সরকারীভাবে স্থানীয় ২২ হাজার কর্মহীন দুঃস্থ পরিবারকে খাদ্য সহায়তা ও নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে। দেশের এই করোনা পরিস্থিতিতেও স্থানীয়ভাবে নিশ্চিত করেছেন চিকিৎসা সেবা। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ কালীগঞ্জের প্রতিটি কমিউনিটি হাসপাতালে স্থাস্থ্য সেবা ও করোনা নমুনা সংগ্রহের ব্যবস্থা করা হয়েছে। দলমত নির্বিশেষে প্রকৃত অভাবী সবাই এই ত্রাণ সহায়তা পাচ্ছেন। তিনি স্থানীয় ইমাম, মোয়াজ্জিনসহ এতিমখানার শিক্ষার্থীদের সহায়তা প্রদানেও সচেষ্ট আছেন।

এছাড়া করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সাধারণ মানুষের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধিতেও তিনি সমানভাবে কাজ করে যাচ্ছেন সাবেক সফল এই প্রতিমন্ত্রী। মসজিদের ইমাম ও মোয়াজ্জিনদের মাধ্যমে মুসল্লিদের সচেতন করা হচ্ছে। তাঁর নির্দেশে কালীগঞ্জের বিভিন্ন বাজারঘাট, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ও গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় ছিটানো হচ্ছে জীবাণুনাষক স্প্রে। আর এ কাজের সঙ্গে আছেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে  উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মো. মাজেদুল ইসলাম সেলিম ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকমকে বলেন, ‘গাজীপুর-৫ কালীগঞ্জ আসনটি গাজীপুর সিটির কয়েকটি ওয়ার্ড ও সদর উপজেলার কিছু অংশ নিয়ে গঠিত। স্থানীয়ভাবে প্রচুর কল-কারখানা গড়ে উঠায় বর্তমানে এ আসনটি শ্রমিক অধ্যুষিত এলাকা হিসেবে পরিচিত। এই এলাকায় স্থানীয়দের পাশাপাশি ভাসমান মানুষও রয়েছে। দেশের এই ক্রান্তিকালে এখানকার নি¤œ আয়ের ও দরিদ্র অস্বচ্ছল পরিবারগুলো সবচেয়ে বেশি কষ্ট করছে। আমাদের নেত্রী চুমকি আপনার পরামর্শে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে করোনার শুরু থেকে আমাদের ত্রাণ বিতরণ কর্মসূচি অব্যাহত রেখেছি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার আগ পর্যন্ত এই কার্যক্রম চলবে’।

কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মোয়াজ্জেম হোসেন পলাশ ক্যাম্পাসলাইভ’কে বলেন, ‘গাজীপুর-৫ কালীগঞ্জ নির্বাচনী আসনের তৃণমূলের নেতাকর্মীদের ভরসাস্থল মেহের আফরোজ চুমকি এমপি। করোনার কারণে লকডাউন ঘোষণার পর থেকেই তিনি যেভাবে অসহায় মানুষের পাশে আছেন, তা নজিরবিহীন। মেহের আফরোজ চুমকি এপি’র নির্দেশনা ও পরামর্শ নিয়ে আমরা সবাই স্থানীয় কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছি’।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি এমপি ক্যাম্পাসলাইভ’কে বলেন, ‘আমার বাবা শহীদ ময়েজউদ্দিন আহমেদ সারা জীবন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নিবেদিত একজন কর্মী হিসেবে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ট সহচর হয়ে কাজ করে গেছেন। আমিও চেষ্ঠা করে যাচ্ছি বাবার মত করে বঙ্গবন্ধু কন্যার পাশে থেকে অসহায়, দুঃস্থ ও সহায় সম্বলহীন মানুষের জন্য কাজ করতে। বাবাই আমাকে শিখিয়েছেন মানুষের বিপদে কিভাবে সাহায্যের হাত বাড়াতে হয়। আজ তিনি বেঁচে নেই। কিন্তু তাঁর আদর্শ বুকে ধারণ করে কাজ করে যাচ্ছি’।

ঢাকা, ২২ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//টিআর

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।