কসবায় দুই ট্রেনের সংঘর্ষে নিহত ১৬


Published: 2019-11-12 11:55:54 BdST, Updated: 2019-12-13 08:44:13 BdST

লাইভ প্রতিবেদকঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় দুই ট্রেনের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এখন পর্যন্ত ১৫ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা যাচ্ছে।

সোমবার দিবাগত রাত ২ টা ৪৮ মিনিটে উপজেলার মন্দবাগে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী তূর্ণা নিশীথা এবং সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেন দুটির মধ্যে সংঘর্ষের এই ঘটনা ঘটেছে। এ সময় একটি ট্রেনের একাধিক বগি আরেকটি ট্রেনের কয়েকটি বগির উপর আছড়ে পড়ে।

এর আগে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়াত উদ দৌলা দুর্ঘটনার এসব তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, উদ্ধার তৎপরতা চলমান রয়েছে। এখন পর্যন্ত ১৫ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনাস্থলের কাছে একটি অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে।

সেই সাথে কুমিল্লায় আহত অবস্থায় একজন মৃত্যুবরণ করেছেন।

কিন্তু নিহতের পরিচয় এখন পর্যন্ত মিলছে না। এছাড়াও ব্রাক্ষ্মনবাড়িয়া ও কুমিল্লার বিভিন্ন হাসপাতালে আহতদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, তূর্ণা নিশীথা ট্রেনের চালক সিগন্যাল (সংকেত) অমান্য করার
ফলেই এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। মন্দবাগ রেল স্টেশনে দাঁড়ানোর জন্য এই সিগন্যাল দেয়া হয়। ওই সিগন্যালে সিলেট থেকে ছেড়ে আসা চট্টগ্রামগামী উদয়ন এক্সপ্রেস প্রধান লেন থেকে ১ নম্বর লাইনে যেতে শুরু করে। ট্রেনটির ছয়টি বগি ১ নম্বর লাইনে উঠতে পেরেছিল। কিন্তু অন্য বগিগুলো প্রধান লেনে থাকা অবস্থায় তূর্ণা নিশীথা সিগন্যাল অমান্য করে।

যার কারণে তূর্ণা নিশীথার একাধিক বগি ওই ট্রেনের কয়েকটি বগির উপরে উঠে যায়। এতে উদয়নের তিনটি বগি দুমড়ে মুচড়ে যায়। নিহত ১৫ জন সবাই উদয়নের যাত্রী ছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জেলা প্রশাসন সূত্র হতে জানা গেছে, ঘটনাস্থলের কাছে বায়েক শিক্ষা সদন উচ্চ বিদ্যালয়ে একটি অস্থায়ী ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। সেখানে রয়েছে নয়টি লাশ। সেই সাথে কসবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রয়েছে তিনটি লাশ। এর মধ্যে একজন পুরুষ, একজন নারী ও একটি শিশু। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে রয়েছে নারী ও পুরুষের দুটি লাশ। আর কুমিল্লা জেলা সদর হাসপাতালে রয়েছে একজন পুরুষের লাশ।

ঢাকা, ১২ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।