ভোলায় জলবায়ু পরির্তন মোকাবেলায় কর্মশালা


Published: 2019-09-11 19:03:57 BdST, Updated: 2019-11-13 12:42:23 BdST

লাইভ প্রতিনিধি: ভোলায় জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় খাপ খাওয়াতে উদ্ভাবনী ধারনা বিষয়ক তরুনদের সাথে কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। মঙ্গলবার সকালে ভোলা জেলা প্রশাসক মিলনায়তনে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে তরুনদের কথা শুনেন জেলা প্রশাসক মো: মাসুদ আলম ছিদ্দিক।

জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ এর সহায়তায় ভোলা জেলা প্রশাসন এর আয়োজনে কর্মশালায় স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক মো: মাহামুদুর রহমান এর সভাপত্বিতে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন- অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (তথ্য ওশিক্ষা) আতাহার মিয়া, জাতিসংঘের শিশু বিষয়ক সংস্থা ইউনিসেফ এর অফিসার আব্দুল জলিল, এলজিসি প্রকল্পের জেলা সমন্বয়কারী আব্দুস সালাম, ইয়ুথ পাওয়ার ইন বাংলাদেশ এর প্রধান সমন্বয়কারী সাংবাদিক আদিল হোসেন প্রমুখ।

কর্মশালায় উপস্থিত তরুন-তরুনিরা

 

কর্মশালায় প্রধান আলোচক ছিলেন-বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কোস্টাল স্টাডিজ অ্যান্ড ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট বিভাগের শিক্ষক বিশিষ্ট পরিবেশ বিজ্ঞানী ও ইউনিসেফের জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক কনসালটেন্ট আসিফ মঈনুর চৌধুরী। তরুনদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-সোয়েব চৌধুরী,আব্দুল্লাহ নোমান,তরিকুল ইসলাম, সানজা, রাহাত খান, সাজিদুল, গোপাল মাইনুল এহসান প্রমুখ।

কর্মশালায় বক্তারা বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবে উপকূলীয় অঞ্চলে বসবাস ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ছে। ইউনিসেফ এর রিপোর্টে অনুযায়ী বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তন প্রভাবে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ জেলা হচ্ছে ভোলা। দিন দিন উপকূলিয় এই জেলার ঝুঁকির পরিমাণ বাড়ছে। মানুষের মৌলিক চাহিদার উপর প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। তাই আগামী দিনে জলবায়ু পরিবর্তনের সাথে মানিয়ে চলতে তরুনদের ভূমিকা রাখার আহ্বান জানায়।

তরুনরা সচেতন হলে জলবায়ু পরিবর্তনের সাথে মানিয়ে চলতে সবাইকে সচেতন করে গড়ে তুলতে পারবে। কর্মশালায় ভোলা জেলার বিভিন্ন উপজেলার বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের তরুন-তরনীরা অংশ গ্রহন করে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় খাপ খাওয়াতে উদ্ভাবনী বিভিন্ন ধারনা প্রদান করে।

 

ঢাকা, ১১ সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।