ক্ষোভ আর হতায় আছে শিক্ষার্থীরাকলেজ পাননি সাড়ে ৫৫ হাজার শিক্ষার্থী, হতাশা


Published: 2019-06-22 20:04:41 BdST, Updated: 2019-12-12 12:13:23 BdST

লাইভ প্রতিবেদকঃ কোথাও সুযোগ পাননি তারা। একবার নয় দুইবারের চেষ্ঠা তাদের ব্যর্থ করেছে। হতাশা আর নানান দু:শ্চিন্তায় ওই শিক্ষার্থীদের ঘুম হারাম। লজ্জায় অনেকেই বাসা আর ঘর থেকে বের হচ্ছে না। কি করবে, কোথায় ভর্তি হবে এনিয়ে চলছে নানান হিসাব-নিকাশ। একাদশে ভর্তির জন্য দ্বিতীয় ধাপে ৫৫ হাজার ৫২৫ জন শিক্ষার্থী আবেদন করে কোথাও সুযোগ পাননি।

সারা দেশে মোট ১৩ লাখ ৫৪ হাজার ৩১৭ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেছিল। তাদের মধ্যে ১২ লাখ ৯৮ হাজার ৭৯২ জন কলেজে ভর্তির জন্য মনোনীত হয়েছে বলে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড থেকে জানা গেছে। তবে এ ধাপে আবেদন করেও সারা দেশের মোট ১ হাজার ৮৪৪ জন জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীর কোনো কলেজে ভর্তির সুযোগ মেলেনি। অবশ্য তৃতীয় ধাপে তারা আবারও আবেদন করার সুযোগ পাবেন বলে সংশ্লিস্টরা জানিয়েছেন।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক ড. হারুন অর রশিদ জানান, দ্বিতীয় ধাপে ঢাকা বোর্ডর অধীনে মোট ৩ লাখ ৪৩ হাজার ১০ জন আবেদন করেন। তাদের মধ্যে ৩ লাখ ২৩ হাজার ২১৯ জন ভর্তির জন্য মনোনীত হয়েছে। এ বোর্ডে আবেদন করেও ভর্তির সুযোগ মেলেনি ১০ হাজার ২০৯ জন শিক্ষার্থীর।

তাদের মধ্যে ৪৯৬ জন জিপিএ-৫ পাওয়া শিক্ষার্থীও রয়েছে। তিনি বলেন, দ্বিতীয় ধাপে আবেদন করে ৭৪ শতাংশ শিক্ষার্থী প্রথম পচ্ছন্দের কলেজ পেয়েছে। তালিকায় ২য় পচ্ছন্দের কলেজে ১৩ শতাংশ, ৩য় পচ্ছন্দে ৬ শতাংশ, ৪র্থ পচ্ছন্দে ৪ শতাংশ ও ৫ম পচ্ছন্দে ২ শতাংশ শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য মনোনীত হয়েছেন। যারা এ ধাপেও ভর্তি বঞ্চিত হবেন, তারা তৃতীয় ধাপে শূন্য আসনে আবেদন করতে পারবেন। এ দের ভাগ্যে কি জুটবে এনিয়ে কেউ মন্তব্য করতে রাজি হয়নি।

এদিকে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড থেকে জানা গেছে, দেশের সব শিক্ষা বোর্ডে জিপিএ-৫ পেয়েও দ্বিতীয় ধাপে ১ হাজার ৮৪৪ জন কোনো কলেজে ভর্তির সুযোগ পায়নি। এ সংখ্যা রাজশাহী বোর্ডে বেশি। এ বোর্ডে মোট ৭২৪ জন, ঢাকা বোর্ডে ৪৯৬ জন ও কুমিল্লা বোর্ডে ১৯৩ জন রয়েছে। নীতিমালা অনুযায়ী, গত বুধবার একাদশে ভর্তিতে ২য় দফার আবেদন গ্রহণ শুরু হয়।

১৯ ও ২০ জুন ২য় পর্যায়ের আবেদন গ্রহণ করা হয়, ২১ জুন রাতে নির্বাচিতদের ফল প্রকাশ করা হয়। দ্বিতীয় দফায় নির্বাচিতদের ২২ ও ২৩ জুন ভর্তি নিশ্চায়ন করতে হবে। ২৪ জুন রাত ৮টার পর থেকে ৩য় দফায় কলেজে ভর্তির আবেদন গ্রহণ করা হবে।

আগামী ২৫ জুন রাতে প্রকাশ করা হবে আবেদনের ফল। আগামী ২৭ থেকে ৩০ জুন ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে এবং জুলাই মাসের প্রথম দিন শুরু হবে একাদশ শ্রেণির ক্লাস। প্রসঙ্গত গত ১২ মে দুপুরে একাদশ শ্রেণির ভর্তি অনলাইন ও মোবাইল এসএমএসের মাধ্যমে আবেদন কার্যক্রম শেষ হয়।

ওই আবেদন চলে গত ২৪ মে পর্যন্ত। গত ১০ জুন প্রথম ধাপের আবেদনের ভিত্তিতে ফলাফল প্রকাশ করা হয়। গতকাল দিবাগত রাতে কলেজ নিশ্চিয়নের সময় শেষ হয়। এখন তারা কি করবে কোন কলেজের ভর্তির প্রস্ততি নেবে এই চিন্তায় অনেকেই নির্ঘুম রজনী কাটাচ্ছে।

ঢাকা, ২২ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।