মাথা জোড়া লাগানো সেই রাবেয়া-রোকাইয়া যাচ্ছে হাঙ্গেরি


Published: 2019-01-04 17:28:18 BdST, Updated: 2019-06-25 00:20:48 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার পর সরকারি খরচে হাঙ্গেরিতে চিকিৎসা নিতে যাচ্ছে মাথা জোড়া লাগানো দুই শিশু রাবেয়া ও রোকাইয়া। পাবনার চাটমোহর উপজেলার আট লংকা গ্রামের স্কুলশিক্ষক দম্পতি রফিকুল ইসলাম ও তাঁর স্ত্রী তাসলিমা খাতুনের সন্তান তারা। মাথা জোড়া লাগানো শিশু দুটির নাম রাবেয়া ইসলাম ও রোকাইয়া ইসলাম।

শুক্রবার দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে শিশু রাবেয়া-রোকাইয়ার মা-বাবা র হাতে সপরিবারে হাঙ্গেরি যাওয়ার বিমান টিকেট তুলে দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মো. নাসিম।

জানা গেছে, শুক্রবার রাতে উন্নত চিকিৎসার জন্য জোড়া মাথার শিশু রাবেয়া ও রোকাইয়াকে হাঙ্গেরি নেয়া হচ্ছে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর ডা. হোসাইন ইমাম ইমুও হাঙ্গেরি যাবেন শিশু দুটির সঙ্গে। পাবনার চাটমোহর উপজেলার মূলগ্রাম ইউনিয়নের আটলংকা গ্রামে জন্ম রাবেয়া রোকাইয়ার। তাদের বাবা স্কুলশিক্ষক রফিকুল ইসলাম ও মা গৃহবধু তাসলিমা। ২০১৬ সালের ১৬ জুন জন্ম হয় তাদের।

জানা গেছে, টানা এক বছর ধরে মাথা জোড়া লাগানো শিশু দুটি চিকিৎসাধীন আছে ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে। শিশু দুটিকে জার্মান ও হাঙ্গেরির দুই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দেখেন। তারা হাসপাতালে দুই দফায় মাথায় এনজিওগ্রামের মাধ্যমে তাদের ব্রেইনের প্রধান রক্তনালী আলাদা করেন।

এরপর তারা শিশু দুটিকে হাঙ্গেরিতে নিয়ে যৌথ চিকিৎসা করাতে আগ্রহ প্রকাশ করেন। হাঙ্গেরিতে শিশু দুটির চিকিৎসা তত্ত্বাবধান করবে জার্মানভিত্তিক ‘ফর বাংলাদেশ অর্গানাইজেশন’ নামের একটি সংগঠন।

 

 


ঢাকা, ০৪ জানুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।