সংখ্যালঘুরা ভাল না থাকলে মেট্রোরেল, পদ্মাসেতু দিয়ে লাভ কি!


Published: 2018-07-07 19:15:48 BdST, Updated: 2018-07-19 23:25:34 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: প্রফেসর ও লেখক মুহম্মদ জাফর ইকবাল বলেছেন, ধর্মীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষদের ভালো রাখার দায়িত্ব সংখ্যাগুরুদেরই নিতে হবে। তারা যদি বলে ভালো আছে তাহলেই বোঝা যাবে দেশ ভালোভাবে চলছে। অন্যথায় বিশাল মেট্রোরেল, পদ্মাসেতু ও বড় বড় দালানকোঠায় বাংলাদেশের ভালো থাকা বোঝাবে না বলে মনে করেন তিনি।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর মুহম্মদ জাফর ইকবাল আরও বলেছেন, জীবনকে আনন্দময় করা খুব সোজা। অন্যের জন্য কিছু করলেই জীবন আনন্দময় হয়। তিনি বলেন, ‌'আমি যদি অপরের জন্য ত্যাগ করি এর চেয়ে বেশি আনন্দ আর কিছুতে পাওয়া যায় না।

জাফর ইকবাল আরও বলেন, অনেকে হয়তো ঢাকায় ফ্ল্যাট কেনেননি, কিন্তু গ্রামে একটি স্কুল করেছেন। তার জীবন আনন্দময় হয়েছে। জীবন পরিপূর্ণ হবে। ঘুরেফিরে অন্যের জন্য কিছু একটা করতে হবে। যদি আমরা অন্যের জন্য কিছু একটা না করি, তাহলে জীবন পূর্ণ হবে না।'

রাজধানীর জাতীয় জাদুঘর মিলনায়তনে ‘সম্প্রীতি বাংলাদেশ’ নামক একটি নাগরিক ফোরামের আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানে শনিবার এসব কথা বলেন লেখক-অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবাল।

‘গাহি সাম্যের গান’ স্লোগান নিয়ে নতুন এই সংগঠনের আত্মপ্রকাশ অনুষ্ঠানে সম্প্রীতি বাংলাদেশের আহ্বায়ক সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভাপতিত্ব করেন। বিভিন্ন ধর্মের প্রতিনিধিসহ সমাজের নানা পেশার শীর্ষস্থানীয়রা ওই অনুষ্ঠানে একমঞ্চে সমবেত হন।


ওই আয়োজনে ইমেরিটাস অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, অধ্যাপক একে আজাদ চৌধুরী, ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, ডাকসুর সাবেক ভিপি মাহফুজা খানম, প্রেসক্লাবের সভাপতি শফিকুর রহমান, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি সারওয়ার আলী, সাংবাদিক আবেদ খান।

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক শামীম মো. আফজাল, বৌদ্ধ ধর্মীয় নেতা শুদ্ধানন্দ মহাথেরো, রামকৃষ্ণ মিশনের সাধারণ সম্পাদক স্বামী গুরু সেবানন্দ, খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নির্মল রোজারিও, ইসকনের প্রতিনিধি সুখীল দাস, সংগঠনের সদস্য সচিব মামুন আল মাহতাব বক্তব্য রাখেন।

সংখ্যালঘুদের প্রতি দায়িত্ব পালনে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানিয়ে অধ্যাপক জাফর ইকবাল বলেন, ‌'আমাদের চারপাশে যারা আছে, তাদের যদি আমরা আনন্দময় জীবন উপহার দিতে না পারি তাহলে আমরা আমাদের দায়িত্বটা ঠিক পালন করি নাই।' এই লেখক বলেন, ‌'ভিন্ন ভিন্ন রঙের, ভিন্ন ভিন্ন ধর্মের মানুষ একসঙ্গে থাকলে সেটাতে এক ধরনের আনন্দ আছে।

আমাদের খুবই দুঃখ যে, আমরা সেই আনন্দটা পাইনি। আমরা সবাই এক রকম। আমাদের মধ্যে যারা ভিন্ন তারা অমূল্য সম্পদ। তাই এদের রক্ষা করার দায়িত্বটা বাঙালি মুসলমানের ওপর পড়ে গেছে।

তাদের দেখে-শুনে রাখতে হবে, যাতে ভিন্ন ধর্মের মানুষ যারা আছে তারা যেন এখানে শান্তিতে থাকতে পারে।'

তিনি বলেন, ‌"বিভিন্ন ধর্মের মানুষ আছে, পাহাড়ি মানুষ আছে, আদিবাসী মানুষ আছে। তাদের সবার জন্য যদি আমরা এদেশ তৈরি করতে না পারি তাহলে এই বাংলাদেশ দিয়ে কী করব? বিশাল মেট্রোরেল হবে, বিশাল পদ্মাসেতু হবে অনেকগুলো, দেশের অর্থনীতি অনেক বেড়ে গিয়েছে। কিন্তু কোনো ভিন্ন ধর্মাবলম্বী যদি মাথা নিচু করে বলে, ‘আমি ভালো নেই’, তাহলে এতে দেশ ভালো থাকা হবে না।

আমাদের এখানে হিন্দু আছে, বৌদ্ধ আছে, খ্রিস্টান আছে- তারা যদি বলে, ভালো আছি তাহলে বোঝা যাবে দেশ ভালো চলছে। নির্বাচন আসলে তাদেরকে এই দুশ্চিন্তায় পড়তে হবে না, আমাদের বাড়িঘর ঠিক থাকবে, নাকি থাকবে না।"

সভাপতি পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‌"মুক্তিযুদ্ধের যেই প্রধান চেতনা ‘ধর্মনিরপেক্ষতা’, সেটার দিকে আমরা ফিরে যেতে চাই। তাহলে আমরা ধর্মনিরপেক্ষ বাংলাদেশ, শোষণহীন বাংলাদেশ ও সাম্যের বাংলাদেশ গড়ে তুলতে পারব।"

এতে অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, 'আমাদের আঘাত আসতে পারে, আমরা আগে থেকে প্রস্তুত থাকতে চাই। আমরা জানি, এই দেশের অধিকাংশ জনগোষ্ঠী সাম্প্রদায়িকতাবিরোধী ও সাম্যের পক্ষে। আমাদের এখন ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আপনাদের সঙ্গে পেলে আমরা জয়ী হব।'

এছাড়া জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বলেন, 'বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। এখানে হাজার হাজার বছর ধরে নানা ধর্ম-বর্ণের মানুষ সম্প্রীতি নিয়ে বসবাস করছে। দেশ সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে গেছে। বিভেদ এবং সংঘাত যে হয়নি তা নয়।

সব মিলিয়ে যে সম্প্রীতির অবনতি হয়েছে, তা সত্ত্বেও আমরা এর উপরে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রেখে সামনের দিকে অগ্রসর হয়েছি।' আমরা মনে করি এদেশ সম্প্রীতির দেশ, এদেশ শান্তির দেশ, এদেশ মানবতাবাদী দেশ।

 

ঢাকা, ০৭ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।