প্রেসিডেন্টের কাছে স্মারকলিপি দিলেন শিক্ষকরা


Published: 2018-06-22 17:50:19 BdST, Updated: 2018-12-12 09:39:08 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: দাবি আদায়ে ধারাবাহিক আন্দোলনের অংশ হিসেবে প্রেসিডেন্টের কাছে স্মারকলিপি জমা দিয়েছে ননএমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশন। এমপিওভুক্তির জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, তা বাস্তবায়নের দাবিতেই চলমান আন্দোলনের অংশ হিসেবে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টায় নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল বঙ্গভবনে গিয়ে স্মারকলিপি জমা দেয়।

এ সময় প্রতিনিধি দলে ছিলেন ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার, সাধারণ সম্পাদক ড. বিনয় ভূষণ রায়, সিনিয়র সহ সভাপতি শফিকুল ইসলাম, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ার হোসেন এবং সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফুল হক লাভলু। স্মারকলিপি দিয়ে ফিরে আসার পর ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ মাহমুদুন নবী ডলার বলেন, ‘আমরা দাবি বাস্তবায়নের ব্যাপারে সরকারের পক্ষ থেকে কোনো বক্তব্য আসে কি না, সে জন্য আগামী রোববার পর্যন্ত অপেক্ষা করবো।

তারপর সোমবার থেকে আমরা আমরণ অনশনে যাব।’এদিকে সকাল থেকেই সংগঠনটির নেতাকর্মীরা প্রেসক্লাবের বিপরীত দিকের রাস্তায় অবস্থান নিয়ে স্বীকৃতিপ্রাপ্ত সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির দাবিতে স্লোগান দেয়। এ সময় নন-এমপিও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপের মাধ্যমেই এমপিওভুক্তির বিষয়টি সুরাহার দাবি জানান।

এ ছাড়া নতুন বাজেটে বিষয়টি নিয়ে কোনো বরাদ্দ না থাকায় শিক্ষকরা হতাশাও প্রকাশ করেন তারা। ননএমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা জানান, ২০০৬ সাল থেকে আমরা আন্দোলন করে আসছি।

এমপিওভুক্তির দাবিতে এখন পর্যন্ত ২৭ বার আন্দোলন নেমেছি আমরা। এর আগে আন্দোলনে রাস্তায় নামলে গত ৫ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আশ্বাসে আন্দোলন স্থগিত করে আমরা ঘরে ফিরে যায়। এরপর সরকারের বিভিন্ন পর্যায় থেকেও বলা হয়েছে নতুন অর্থবছরে নতুন বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করা হবে। কিন্তু অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ২০১৮-১৯ অর্থবছরের যে বাজেট প্রস্তাব করেন, সেখানে তিনি নতুন এমপিওভুক্তির বিষয়ে সুস্পষ্ট করে কিছু বলেননি।

যদিও শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জন্য যে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে, তা থেকে পর্যায়ক্রমে এমপিওভুক্ত করা হবে। এই প্রেক্ষাপটে পরিবার-পরিজন, স্ত্রী-সস্তানদের রেখে ঢাকার রাজপথেই ঈদের নামাজ পরেছি বলেও জানান তারা। এবারের বাজেটে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দুই বিভাগের জন্য ৫৩ হাজার ৫৪ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে।

যা এখাতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বরাদ্দ। তবে বরাদ্দের ক্ষেত্রে প্রাথমিক বিদ্যালয়, কারিগরি বিদ্যালয় ও কলেজ নির্মাণসহ বিভিন্ন অবকাঠামোর ওপরই বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এদিকে এমপিওভুক্তি না হলে বেতন-ভাতা কিছুই পাবেন না তা।

এ ব্যাপারে অনেকটা আতঙ্কে রয়েছেন বলেও জানান তারা।


ঢাকা, ২২ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।