নবিতে আইন শৃঙ্খলা কমিটির সংবাদ সম্মেলন


Published: 2019-09-10 14:54:39 BdST, Updated: 2019-09-16 00:48:09 BdST

নবি লাইভ: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভ্রান্তিকর তথ্য ও মানহানিকর সংবাদ প্রচার না করার আহবান জানিয়ে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা বোর্ড সংবাদ সম্মেলন করেছেন।

সোমবার বিকালে বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য কক্ষে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন, শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সম্পর্কে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ভাবে একটি সংঘবদ্ধ মহল মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত তথ্য ও সংবাদ প্রচার করছে তা অত্যন্ত দুঃখজনক। বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন ও মানহানীকর তথ্য প্রচারকারীদের বিরুদ্ধে বর্তমান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন অনেক বেশি সজাগ এবং কঠোর।

এই সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মান এবং অগ্রযাত্রা ব্যাহত কারীদের সকল ধরণের অপপ্রচার, বিভ্রান্তিকর ও মিথ্যা প্রচার বন্ধ করার জন্য সকলের কাছে অনুরোধ জানানো হয়। অন্যথায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যে কোনো ধরণের ষড়যন্ত্রকারী অথবা শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ সর্বোচ্চ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বাধ্য হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট সকল যৌক্তিক সমস্যার সুষ্ঠু সমাধান করতে বর্তমান প্রশাসন বদ্ধ পরিকর। উদ্ভূত যে কোনো অনাকাঙ্খিত বিষয়ের সুষ্ঠু সমাধানের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরে আলাপ আলোচনা করে সমাধান করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকলকে বিনীত অনুরোধ জানান।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও শৃঙ্খলা বোর্ডের সভাপতি অধ্যাপক ড. এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান, সদস্য সচিব ও প্রক্টর উজ্জ্বল কুমার প্রধান, ট্রেজারার অধ্যাপক জালাল উদ্দিন, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) ড. মো. হুমায়ুন কবীর, ছাত্রবিষয়ক উপদেষ্টা শেখ সুজন আলী, অগ্নিবীণা হল প্রভোস্ট সিদ্ধার্থ দে, দোলন চাঁপা হল প্রভোস্ট জান্নাতুল ফেরদৌস, অর্থ হিসাবের পরিচালক সোহেল রানা, আইন ও বিচার বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ইরফান আজিজ, উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) এস এম হাফিজুর রহমান, সিকিউরিটি অফিসার রামিম আল-করিম ও বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সদস্যবৃন্দ৷

শৃঙ্খলা বোর্ডের সদস্য সচিব ও প্রক্টর উজ্জ্বল কুমার প্রধান সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মান হানিকর কোনো মন্তব্য ও স্ট্যাটাস দেওয়া হলে তার বিরুদ্ধে আইনানুক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে যে কোনো শিক্ষার্থী তার যে কোনো সমস্যার জন্য সংশ্লিষ্ট দফতরের কাছে লিখিত অভিযোগ দিতে পারবেন।

ছাত্রবিষয়ক উপদেষ্টা শেখ সুজন আলী সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্যে বলেন, এ বিশ্ববিদ্যালয় হলো আমাদের পরিবার। পরিবারের একজন কেউ ভুল করে থাকলে তার সম্মান রক্ষা আমাদেরই করতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভালো চাওয়াটা আমাদের সকলের দায়িত্ব। যদি কারো কোনো অভিযোগ থাকে সেটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে না দিয়ে সংশ্লিষ্ট দফতরে গিয়ে সমস্যা সমাধান করতে হবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে শৃঙ্খলা কমিটির সভাপতি উপাচার্য প্রফেসর ড এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছুসংখ্যক শিক্ষার্থী যে ধরনের ভাষা ব্যাবহার করেছে তা একজন শিক্ষিত লোকের ভাষা হতে পারেনা। ভবিষ্যতে কেউ যদি বিশ্ববিদ্যালয়ের মানহানিকর কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দেয় তাকে বিন্দুমাত্র ছাড় দেওয়া হবেনা।

পরিবহন সংকট নিয়ে তিনি বলেন, আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি টিম নিয়ে বি আর টি সি চেয়ারম্যান এর সাথে কথা বলেছি, আমাদের দাবির প্রেক্ষিতে তিনি আমাদের ২ টি বাস দিয়েছেন। আমি যখন জানতে পারলাম বাস ২ টি চলাচলের অনুপযোগী সাথে সাথেই বি আর টি সি বর্তমান চেয়ারম্যানের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করে বিষয়টি অবহিত করি এবং তিনি আমাদের আশ্বস্ত করেছেন ডিসেম্বর এর মধ্যেই আমাদের নতুন ২ টি বাস দিবেন।

এ সময় তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কোমলমতি শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় বিরোধী সকল ষড়যন্ত্র মোকাবিলায় ঐক্যবদ্ধ থাকার আহবান জানান। উল্লেখ্য, সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন ও বিচার বিভাগের শিক্ষার্থী মো. মোরসালিন রহমান শিখর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের বিরুদ্ধে অশালীন ভাষায় একটি স্ট্যাটাস দেয়, সেই স্ট্যাটাসটি প্রশাসনের দৃষ্টিগোচর হলে তাকে গত ২৭ সেপ্টেম্বর কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

পরবর্তীতে সে লিখিতভাবে প্রশাসনের কাছে ক্ষমা চায় ও শৃঙ্খলা বোর্ডের মিটিং এ এবং সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থেকেও নিজের ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চাইলে শৃৃঙ্খলা বোর্ড তাকে ক্ষমা করেন।

 

ঢাকা, ১০ সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।