নির্মম শিক্ষিকা : ভুল করলেই গায়ে ছ্যাঁকা, আগুন!


Published: 2018-06-08 12:55:03 BdST, Updated: 2018-11-13 02:33:23 BdST

নেত্রকোনা লঅইভ : নেত্রকোনায় গৃহকর্মীর অপর অমানুষিক নির্যাতন চালিয়েছেন এক শিক্ষিকা। কাজে ভুল করলেই গায়ে ছ্যাঁকা দিতেন তিনি। আবার কখনও আগুনে পুড়িয়ে দিতেন শরীরের কোন অংশ। এতেও কাজ না হলে মাথায় আঘাত করতেন কখনও কখনও।

অমানুষিক নির্যাতনের বিষয়টি ফাঁস হয়ে যাওয়ার অভিযোগে শিক্ষিকা ফারজানা আকতারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অন্যদিকে শিশু গৃহকর্মীকে মাথা ফাটানো অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার শরীরে অসংখ্য ছ্যাঁকা ও পোড়া দাগের চিহ্ন রয়েছে। বৃহস্পতিবার (৭ জুন) নেত্রকোনা শহরের নাগরা এলাকার নিজ বাসা থেকে ওই শিক্ষিকাকে আটক করা হয়।

আটক ফারজানা ওই এলাকার স্কুলশিক্ষক রাসেল মাহমুদের স্ত্রী। নির্যাতনের শিকার মিমি চল্লিশা ইউনিয়নের রাজেন্দ্রপুর গ্রামের বাসিন্দা ব্যাটারি চালিত অটোরিকশাচালক বাচ্চু মিয়ার মেয়ে। সৎ মায়ের পরামর্শে বাবা তাকে স্কুলশিক্ষিকা ফারজানার বাসায় গৃহকর্মীর কাজে দিয়েছে বলেও দাবি করেছে ওই কিশোরী।

নেত্রকোনা মডেল থানার ওসি মো. বোরহান উদ্দিন খান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গৃহকর্মী মিম নির্যাতনের খবর পায় পুলিশ। পরে ঘটনাস্থল থেকে মাথা আঘাত ও রক্তাক্ত অবস্থায় ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

ওসি জানান, মিমের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ফারজানার করা নির্যাতনের অনেক ক্ষতচিহ্ন ও ছ্যাঁকা দেওয়া পোড়া দাগ দেখা যায়। আটকের পর নির্যাতনকারী ফারজানার পরিবারের সঙ্গে কিশোরীর বাবা বাচ্চু মিয়া ম্যানেজ হয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলেও তাতে বাধ সাধে মিম। কিশোরী মিম তার ওপরে চলা অমানবিক নির্যাতনের কথা পুলিশের কাছে বর্ণনা করে ফারজানার কঠোর শাস্তি দাবি করেছে।

ঢাকা, ০৮ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।