মেডিকেল ছাত্রী শ্বশুর বাড়িতে যাবার আগেই করোনায় বরের মৃত্যু


Published: 2021-07-03 23:57:53 BdST, Updated: 2021-09-19 17:53:50 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: তার স্বপ্ন পুরণ হলো না। একটি ছোট্ট ঘর বাধঁতে চেয়েছিলেন তিনি। তার আশা ছিলো ডাক্তার হয়ে জনসেবা আর শিক্ষা বিস্তারে স্বামীকে নিয়ে একসাথে কাজ করবেন। কিন্তু বিধি বাম। তার মনের আশা অপূর্ণাঙ্গই রয়ে গেলে। করোনার ভয়াল থাবায় সব কিছুই ম্লান হয়ে গেল। তছনছ হয়ে গেছে মেডিকেল ছাত্রীর স্বপ্ন। সেই ছাত্রীর স্বামী শেখ নিয়ামুল কবীর আর নেই। করোনায় কেড়ে নিয়ে তার তাজা প্রাণ। আর সেই ছাত্রী করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন বাবার বাড়িতে। তাকে জানানো হয়নি স্বামীর মুত্যুর সংবাদ।

এদিকে সবই ছিলো ঠিকটাক। বিয়ে করেছিলেন গত বছরের নভেম্বর মাসে। পরিকল্পনা ছিল এবারের কোরবানী ঈদের পরেই বিয়ে পরবর্তী অনুষ্ঠান সম্পন্ন করে স্ত্রীকে ঘরে তুলবেন শেখ নিয়ামুল কবীর । কিন্তু তার আগেই করোনা কেড়ে নিল বরের প্রাণ। তিনি চলে গেলেন ওপারে। আর ফিরবেন না।

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটের আইসিউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত শুক্রবার রাতে মারা যান শেখ নিয়ামুল কবীর (২৭)। তিনি ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ডের সহকারী প্রোগ্রামার ছিলেন। একজন স্বপ্নবাজ মানুষের মৃত্যুতে এলাকাবাসী একজন শিক্ষানুরাগীকে হারালো।

এ ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে পরিবার ও এলাকায়। স্বামীর মৃত্যুর পর করোনায় আক্রান্ত গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় স্ত্রীর চিকিৎসা চলছে বাবার বাড়িতে। নিয়ামুল কবীরের স্ত্রী ঢাকার একটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজের চতুর্থ বর্ষের ছাত্রী।

এ ব্যাপারে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নুরুল হুদা খান জানান, শেখ নিয়ামুল কবীর করোনা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি হয়েছিলেন। এরপর পরীক্ষার জন্য নমুনা দেন।

ফলাফল আসার আগেই তার অবস্থার অবনতি ঘটলে তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। সেখানেই তিনি মারা যান। পরে নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে তার কভিড পজিটিভ শনাক্ত হয়। এ মৃত্যুর খবর গোটা এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে শোকের ছায়া নেমে আসে। আফসোস ছাড়া আর কিছুই করার নেই।

ঢাকা, ০৩ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।