‘ছেলে আমার বিসিএস ভাইভা দিয়েছে, রেজাল্টের আগেই সব শেষ’


Published: 2019-01-26 02:17:47 BdST, Updated: 2019-04-23 08:44:31 BdST

চট্টগ্রাম লাইভ : কদিন আগেই বিসিএস ভাইভা পরীক্ষা দিয়েছেন তিনি। কিন্তু রেজাল্ট হওয়ার আগেই সবকিছু শেষ হয়েছে তাদের। তাকে ঘিরে পারিবারের স্বপ্ন এখন অনেকটাই ফিকে হয়ে গেছে। চট্টগ্রাম মেডিকেলের ছাত্র ডা. জোবাইদুল হক ফাহাদের না ফেরার দেশে চলে যাওয়ার গল্প এটি।

ডা. ফাহাদের বাবা প্রকৌশলী মঞ্জুরুল হক বলেন, কুরআনের হাফেজ ছেলে আমার ৩৯তম বিসিএসে ভাইভা দিয়েছে। রেজল্টের জন্য অপেক্ষায় করছিলাম। রেজাল্টটা হলেই আমাদের স্বপ্নটা পূরণ হতো। কিন্তু বিধির এ কি লীলা খেলা, সবকিছুই শেষ হয়ে গেল। ক্যাডার হবে সে আশা পূরণ না করেই এইভাবে আমাদের ছেড়ে চলে গেলি। কোথায় আমার জানাজার ইমামতি করবি তুই, আর এখন তোর জানাজা পড়তে হলো আমাকে।

অন্যদিকে ছেলেকে হারিযে মা বার বার মূর্ছা যাচ্ছে বার বার। তিনি বলেন, আমার বাবারে এনে দাও। আমার বাবারে ছাড়া কেমনে দিন কাটাব? বাবা আমার কেমনে আমাকে ছেড়ে চলে গেল। কোন ভাবেই শান্ত করা যাচ্ছে না মায়ের মন। বাবা-মা ছাড়াও তার আত্মীয়-স্বজন ও পাড়া প্রতিবেশীরা তার আকস্মিক মৃত্যু কিছুতেই মেনে নিতে পারছে না।

উল্লেখ্য, ডা. ফাহাদ বন্দরনগরী চট্টগ্রামের চান্দগাঁও এলাকার নুরুল হক ঠিকাদারের বাড়ির আফজল মাঝির পাড়ার প্রকৌশলী মঞ্জুরুল হকের তিন ছেলেমেয়ের মধ্যে বড়। তবে তার গ্রামের বাড়ি হাটহাজারী উপজেলায়। ডা. ফাহাদ চট্টগ্রামের বায়তুশ শরফ আইডিয়াল মাদ্রাসা থেকে দাখিল ও সরকারি হাজী মোহাম্মদ মহসীন কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের ৫৩তম ব্যাচের ছাত্র ছিলেন। এছাড়াও তিনি লাইটার ইয়ূথ ফাউন্ডেশনের কো-অর্ডিনেটরের দায়িত্বপালনসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কাজের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। তিনি এক বছর তিন মাস আগে পারবারিকভাবে হাটহাজারী পৌরসভার মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসী মো. আজাদের বড় মেয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল থেকে পাস করা ডা. জান্নাতুন নাঈম শারমিনের সাঙ্গে ডা. ফাহাদের আকদ সম্পন্ন হয়েছিল। বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক করার প্রস্তুতি ছিল। ঠিক ওই সময়ই আসলো এমন দুঃসংবাদ।

ঢাকা, ২৬ জানুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।