হাসপাতালের নির্জন কক্ষে ছাত্রীকে ধর্ষণ ইন্টার্ন চিকিৎসকের!


Published: 2018-07-17 21:42:31 BdST, Updated: 2018-12-19 20:25:23 BdST

সিলেট লাইভ : সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এক রোগীর স্বজনকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে ইন্টার্ন চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। হাসপাতালের চতুর্থ তলার ৭ নং ওয়ার্ডের ডিউটি চিকিৎসকের নির্জন কক্ষে রোববার রাতে নবম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়। এ ঘটনা নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে মেডিকেল কলেজে। সোমবার হাসপাতাল থেকে অভিযুক্ত ইন্টার্ন চিকিৎসক মাক্কাম আহমদ মাহিনকে আটক করেছে পুলিশ। মাহিন তাবলীগ জামায়াতের সঙ্গে যুক্ত থেকেও এমন অপকর্ম করায় এনিয়ে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে। বিষয়টি যেন কারো বিশ্বাসই হচ্ছে না।

আটক মাহিন ময়মনসিংহের মুক্তাগাছার মীর মখলিছুর রহমানের ছেলে। জানা গেছে, গত ৯ জুলাই টনসিলের অস্ত্রোপচারের জন্য এক রোগীকে হাসপাতালের তৃতীয় তলার ৮নং ওয়ার্ডের ১৪ নং বেডে ভর্তি করা হয়। সেদিন থেকেই নবম শ্রেণি পড়ুয়া ওই ছাত্রী তার নানির দেখাভালের করছিল। রোববার রাতে ওই রোগীর গলায় অস্ত্রোপচার হয়। রাত দুইটার দিকে প্রেসক্রিপশন নিয়ে ডিউটি চিকিৎসক মাহিনের কক্ষে যান ওই ছাত্রী। এ সময় ওই ছাত্রীকে নির্জন কক্ষে আটকে ধর্ষণ করে মাহিন নামে ইন্টার্ন চিকিৎসক। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে মাহিনকে আটক করা হয়।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (গণমাধ্যম) মুহম্মদ আবদুল ওয়াহাব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ঢাকা, ১৮ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।