মাদরাসাছাত্রকে জীবন্ত মাটিতে পুঁতে রাখার অভিযোগ


Published: 2019-08-29 15:52:46 BdST, Updated: 2019-09-19 21:33:43 BdST

বরিশাল লাইভ: গুঠিয়া দোসতীনা সিনিয়র ফাজিল মাদরাসার প্রিন্সিপালের ল্যাপটপ চুরি করতে রাজি না হওয়ায় এক মাদরাসাছাত্রকে মারধর করে মৃত ভেবে অর্ধেক শরীর মাটিতে পুঁতে রাখার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার রাতে গুরুতর অবস্থায় হেফজ বিভাগের ছাত্র মাহফুজকে (১৪) উদ্ধার করে শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। মাহফুজ মাদরাসা সংলগ্ন এলাকার সাইদুর রহমানের ছেলে।

মাহফুজের চাচা হাফেজ হাবিবুর রহমান জানান, গত মঙ্গলবার রাতে ওই এলাকার মজিবুর রহমানের ছেলে ভুলু মাদরাসার প্রিন্সিপালের ব্যবহৃত ল্যাপটপ চুরির জন্য মাহফুজকে চাপ দেয়। মাহফুজ রাজি না হওয়ায় তাকে অর্থের প্রলোভন দেখায় মজিবুর।

এরপর ভুলু তার অন্যান্য সহযোগীদের নিয়ে সহায়তায় মাহফুজকে অপহরণ করে মাদরাসা সংলগ্ন বাগানে নিয়ে বেদম মারধর করে এবং শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা চালায়। এক পর্যায়ে সে অচেতন হয়ে পড়লে মৃত ভেবে মাহাফুজের অর্ধেক শরীর মাটিতে পুতে সটকে পড়ে তারা।

রাতে মাহফুজের খোঁজ পড়লে বিভিন্ন স্থানে সন্ধান করেও তাকে পাওয়া যায়নি। এক পর্যায়ে ওই বাগান থেকে মাহফুজকে উদ্ধার করে শেরে-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে স্বজনরা।

উজিরপুর থানার ওসি শিশির কুমার পাল জানান, খবর পেয়ে বুধবার পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। মাহফুজের পরিবারকে লিখিত অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে। অভিযোগ পেলে মামলা রুজুসহ আইনগত ব্যবস্থা নেবে পুলিশ।

ঢাকা, ২৯ আগস্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।