চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে অন্ত:সত্ত্বা করেছে মাদ্রাসার হুজুর!


Published: 2018-08-31 12:13:39 BdST, Updated: 2018-12-15 18:03:47 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: মাদ্রাসার মুহতামিমের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। বাইটকামারী কওমি মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক আব্দুল বাছেদের হাতে ধর্ষণের শিকার হয়ে চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রী অন্ত:সত্ত্বা হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়েছে।

কুড়িগ্রাম জেলাধীন রৌমারী উপজেলায় বাইটকামারী কওমি মাদ্রাসার এমন ঘটনা ঘটে।

ধর্ষণের ব্যাপারে এলাকাবাসী জানান, ওই স্কুলছাত্রী চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ে। পবিত্র কোরআন শরীফ শিক্ষা নেয়ার জন্য সাড়ে ৫ মাস আগে বাইটকামারী কওমি মাদ্রাসায় ভর্তি হয়। সুযোগ বুঝে আব্দুল বাছেদ ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করেন। ছাত্রীটির শারীরিক পরিবর্তন দেখে পরিবারের লোকজন রৌমারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা ৫ মাসের অন্ত:সত্ত্বার কথা জানান।

ওই ছাত্রীর বাবা ক্যাম্পাসলাইভকে জানান, ‘আমি গরীব মানুষ আমার মেয়েকে ৫ মাসের অন্ত:সত্ত্বা করেছে মাদ্রাসার হুজুর। আমি কার কাছে বিচার দিমু। আমার বিচার কেড়া করবো।’

এবিষয়ে জানাতে চাইলে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. কাবেল উদ্দিন বলেন, চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী অন্ত:সত্ত্বার ঘটনা সম্পূর্ণ সত্য। এলাকাবাসী বসে আপোষ মীমাংসা করার কথা শুনছি। এ বিষয়ে আমার কাছে কোন পক্ষ আসে নাই।

মাদ্রাসার সভাপতি মো. আব্দুল কাদের বলেন, ‘আমি কুড়িগ্রাম ছিলাম, ঘটনা জানার পর বাড়ি আসছি। মেয়ের বাবা এখন পর্যন্ত আমার কাছে আসে নাই। মাওলানা সাব আজ মাদ্রাসায় উপস্থিত হন নাই। বাড়িতেও নাই।’

 

 

ঢাকা, ৩১ আগস্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।