যবিপ্রবির ভর্তি পরীক্ষায় এক কলেজ শিক্ষকসহ আটক ৬


Published: 2017-11-09 20:16:11 BdST, Updated: 2017-11-19 05:35:39 BdST

যবিপ্রবি লাইভ: যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (ইঞ্জি./সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় অসদুপায়ের দায়ে একজন শিক্ষকসহ ৬ জনকে আটক করা হয়েছে।

তেমন কোনো বিপত্তি ছাড়াই সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে ভর্তি। পরীক্ষা। তবে নিষিদ্ধ ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার ও অসাধুপায় অবলম্বনের অভিযোগে কলেজের একজন শিক্ষকসহ ছয় জনকে আটক করে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত।

বৃহস্পতিবার যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে তিনটি পরীক্ষা কেন্দ্র ও একটি মেস থেকে তাদের আটক করে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদন্ড দেওয়া হয়। কারাদন্ড পাওয়া সকলকেকে কারাগারে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

জানাগেছে ডা. আব্দুর রাজ্জাক মিউনিসিপ্যাল কলেজ পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে আটক হন ওই কলেজের ভূগোলের বিভাগের শিক্ষক আব্দুল কুদ্দুস। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি মুঠোফোনে প্রশ্নপত্রের ছবি তুলে ফেসবুকের মেসেঞ্জারের মাধ্যমে বাইরে পাঠাচ্ছিলেন। পরে তার মুঠোফোনে তল্লাশি করে ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় ভ্রাম্যমান আদালত তাকে দুই বছরের কারাদন্ড দেন।

এছাড়া সরকারি এম এম কলেজ থেকে অবৈধ ইলেক্ট্রনিক্স ডিভাইসসহ ভর্তি পরীক্ষার্থী মাশরাফি জামান খানকে ধরে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন শিক্ষকেরা। মাশরাফির পিতার নাম আনিসুজ্জামান খান। তাদের বাড়ি যশোরের শার্শা থানার বেনাপোলে।

পরে মাশরাফিকে নিয়ে ঘটনার হোতাদের ধরতে যশোর শহরের খড়কি এলাকায় আলোর পরশ মেসে অভিযান চালায় পুলিশ। সেখান থেকে ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে তিনজনকে আটক করা হয়।

এদের মধ্যে দুজন এম এম কলেজের গণিত বিভাগের স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থী। তারা হলেন, সাজেদুর রহমান (২৩); পিতা বজলুর রহমান এবং আরেক জনের নাম: মাহবুবুর রহমান, পিতা: আহমদ উল্লাহ।

অন্য জন হলেন রায়হান সিদ্দিক, পিতা: মাহে আলম। তিনি বেনাপোলে ট্রান্সপোর্টে কাজ করেন। তাদের সবার বাড়িই বেনাপোল। ঘটনার সত্যত্য পাওয়া ও স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেওয়ায় মাশরাফিকে ১৫ দিন এবং ঘটনার হোতা বাকি তিনজনকে দুই বছরের কারাদন্ড দেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আরিফুর রহমান।

এ ছাড়া যশোর শিক্ষাবোর্ড স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্র থেকে নিষিদ্ধ ইলেক্ট্রনিক ডিভাইসসহ আতাউল্লাহ সোহান নামের একজন ভর্তি পরীক্ষার্থীকে ধরে পুলিশে সোপর্দ করেন শিক্ষকেরা।
সোহানের পিতার নাম বাকি বিল্লাহ। বাড়ি যশোরের বাঘারপাড়ায়।

ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় সোহানকে ভ্রামামান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নুসরাত আরা খানম ১০ দিনের কারাদন্ড দেন।

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মো: আনোয়ার হোসেন ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করে গুটি কয়েক ব্যক্তি অসাধুপায় উপায় অবলম্বনের চেষ্টা করেছিল।

তিনি বলেন, তবে আমাদের শিক্ষকদের তৎপরতা ও প্রশাসনের সহায়তায় কেউ কোনো সুবিধা নিতে পারেনি। ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠু ও স্বচ্ছভাবে সম্পন্ন করতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন যেই জড়িত হোক কাউকেই কোনো ছাড় দেবে না।

প্রথম দিনের পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে সকল শিক্ষক, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ প্রশাসনের সকল পর্যায়ের ব্যক্তি এবং গণমাধ্যম কর্মীাকে ধন্যবাদ জানাই।

প্রথম দিনে ‘এ’, ‘বি’ ও ‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এরমধ্যে ‘এ’ ইউনিটে ২৫০টি আসনের বিপরীতে ১২ হাজার ৯৫৪ জন; ‘বি’ ইউনিটে ১৬০টি আসনের বিপরীতে ১১ হাজার ৯৫৭ জন; ‘সি’ ইউনিটে ২০৫টি আসনের বিপরীতে ৮ হাজার ৩৪০ জন ভর্তি পরীক্ষার্থী অংশ নেন।

আগামীকাল ‘ই’, ‘ডি’ ও ‘এফ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ বছর সাতটি অনুষদের ৭৯৫টি আসনের বিপরীতে ছয়টি ইউনিটে ৩৮ হাজার ২৩৯ জন পরীক্ষার্থী আবেদন করেছেন।

আগামীকাল শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত ‘ই’ ইউনিট; বেলা ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ‘ডি’ ইউনিট এবং বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ‘এফ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

সকল ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার সময় পরীক্ষার হলে সব ধরনের ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস যেমন: ক্যালকুলেটর (শুধুমাত্র ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত ক্যালকুলেটর আনা যাবে), মোবাইল ফোন, ডিজিটাল ঘড়ি বা অন্য কোনো ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার ও পরিবহন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।

এই নির্দেশ অমান্যকারীকে হল থেকে বহিষ্কার করা হবে। ভর্তি পরীক্ষার সময় কেউ যেন বিশৃঙ্খলা কিংবা অসাধুপায় অবলম্বন করতে না পারে এ জন্য তিনটি ভ্রাম্যমাণ আদালতের টহল থাকবে। সবকটি কেন্দ্রে থাকবে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

ঢাকা, ০৯ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।