২১’র মেলায় ২১ বই ইবি শিক্ষক-শিক্ষার্থীর


Published: 2020-02-25 00:01:46 BdST, Updated: 2020-04-02 04:51:20 BdST

ইবি লাইভঃ একুশ মানে কথা বলা, একুশ মানে গ্রন্থমেলা। একুশ মানে মায়ের ভাষায় কথা লেখা, একুশ মানে বইমেলায় হাত ধরে ঘুরে বেড়া। প্রতিবছরই বইমেলায় নতুন নতুন লেখকের বই আসে, বৃদ্ধি পায় জ্ঞানের দরজা। নতুন লেখা আর নতুন বই প্রকাশে পিছিয়ে নেই ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরাও।

যারা কবি কিংবা লেখক রয়েছেন দেশে তাদের বেশ সমাদরও রয়েছে। এবছরও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ভিসি ড. রাশিদ আসকারীসহ ১১ শিক্ষক ও ৫ শিক্ষার্থীর লেখা ও অনুদিত মোট ২১ টি নতুন বই বের হয়েছে।

বইগুলো ঢাকায় অমর একুশে গ্রন্থমেলার বিভিন্ন স্টলে পাওয়া যাচ্ছে। শিক্ষকদের বইগুলোর মধ্যে ভিসি প্রফেসর ড. রাশিদ আসকারী’র লেখা ইংরেজি ছোটগল্প সংকলন ‘নাইনটিন সেভেনটি ওয়ান’ বইটি এবার বেশ সাড়া ফেলেছে। বইটি নয়াদিল্লীতে প্রকাশের পর আগামী প্রকাশনী বইটি বাংলাদেশী সংস্করণে বের করল।

এছাড়া সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. নাসিম বানুর ‘প্লানিং, মনিটরিং এন্ড ইভাল্যুয়েশন ইন বাংলাদেশ’ বিষয়ক একাডেমিক বই, লোক প্রশাসন বিভাগের প্রফেসর গিয়াস উদ্দিনের কাব্যগ্রন্থ ‘স্বর্গীয় প্রযুক্তি’, একই বিভাগের ড. মুন্সি মুর্তজা আলীর ‘তবুও তো ফাগুন আসে’ ও ‘চৈতন্য’ নামে বই দুটি মেলায় স্থান পেয়েছে।

এবারের মেলায় প্রকাশিত হওয়া কিছু বই

 

মেলায় দেখা মিলছে অর্থনীতি বিভাগের জেষ্ঠ্য প্রফেসর আব্দুল মুঈদের ‘মাতৃভূমির বিলাপ’ ও একই বিভাগের ড. রায়হান শরীফের উপন্যাস ‘নিঃসঙ্গ ধ্রুবতারা’। ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ড. এম এম শরিফুল বারীর ‘ভারতে পর্তুগিজ বণিকদের ইতিহাস’সহ মোট ২টি বই বের হয়েছে।

এদিকে বাংলা বিভাগের প্রফেসর ড. রবিউল হোসেনের ‘বঙ্গীয় মুসলমান সাহিত্য সমিতি : সাহিত্যকর্ম ও সমাজ চিন্তা’, একই বিভাগের ড. বাকী বিল্লাহ বিকুলের কাব্যগ্রন্থ ‘নরক আমার বোন’ বইগুলো ব্যতিক্রমধর্মী হিসেবে খ্যাতি পেয়েছে।

এছাড়াও মেলায় অন্যান্য শিক্ষকদের মধ্যে আরবি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের প্রফেসর ড. মাহবুবুর রহমান অনুদিত ‘মক্কার মর্যাদা’, প্রফেসর ড. কামরুল হাসানের অনুদিত গল্পগ্রন্থ ‘স্বপ্নসুখ’, অনুদিত উপন্যাস ‘মিস জাকার্তাসহ ‘ফেরেস্তার প্রার্থনা’ ও ‘আরবি সাহিত্য মঞ্জুষা’ নামের আরো দুটি বই পাওয়া যাচ্ছে।

মেলায় শিক্ষকদের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদেরও নতুন বইগুলোও বেশ সাড়া ফেলেছে। জাতিসংঘের ইতিহাস নিয়ে লেখা আব্দুল কাইয়্যুম আহমেদের ‘ইলুমিনাতি’, মাসুম আলভির গল্পগ্রন্থ ‘শেষ বিকেলের চিঠি’, ইসলাম রফিকের কাব্যগ্রন্থ ‘বিজয়ের তরে গন্তব্য’, সহজে ইংরেজী ভাষায় দক্ষতা অর্জনে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের শিক্ষার্থী মোস্তফা শ্রাবণের লেখা ‘মোস্তফা’স ফ্লাস কার্ড’ ও আল হাদিস বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী সালেহ ফুয়াদ অনুদিত উপন্যাস ‘বাস্তি’ প্রকাশিত হয়েছে অমর একুশে গ্রন্থমেলায়।

বই প্রকাশের বিষয়ে ভিসি ড. রাশিদ আসকারী বলেন, ‘বই হচ্ছে এমন একটি সৃষ্টি, যার কোনো মৃত্যু নেই। এই মহান সৃষ্টির যারা জন্ম দিয়েছেন তাদেরকে অভিনন্দন। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের এই মহৎ সৃষ্টিকর্মের মাধ্যমে লেখকদের এবং পাঠকদের জ্ঞান আহরণের দ্বার নতুনভাবে উন্মোচিত হবে।’

ঢাকা, ২৪ ফেব্রুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।