ইবি: ‘শোককে শক্তিতে পরিণত করে নবজন্ম লাভ করতে চাই’


Published: 2019-12-14 21:52:05 BdST, Updated: 2020-08-10 16:45:09 BdST

ইবি লাইভ: ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেছেন, বুদ্ধিজীবী হারানোর শোককে আমাদের শক্তিতে পরিণত করতে হবে। বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করে একটি গোষ্ঠি আমাদের মেধা-মননে যে শূন্যতা তৈরি করতে চেয়েছিল, সেই শূন্যতা পূরণ করতে হবে বর্তমান ও ভবিষ্যৎ তরুণ প্রজন্মকে।

শহিদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে শনিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে এক আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভিসি এসব কথা বলেন।

তরুণদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তোমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হও, আমরা এই বিশ্বের আইসিটিকে আমাদের করায়ত্ত্ব করবো। বুদ্ধিজীবী হত্যার এই দিনে আমরা শোককে শক্তিতে পরিণত করে নবজন্ম লাভ করতে চাই।

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও মহান বিজয় দিবস ২০১৯ উদ্যাপন কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর ড. জাহাঙ্গীর হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. শাহিনুর রহমান ও ট্রেজারার প্রফেসর ড. সেলিম তোহা। আলোচনাসভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এসএম আব্দুল লতিফ।

আইন ও ভূমি ব্যবস্থাপনা বিভাগের লেকচারার বনানী আফরীনের সঞ্চালনায় এসময় বক্তব্য রাখেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. কামাল উদ্দিন, কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি শামছুল ইসলাম (জোহা) এবং সাধারণ কর্মচারী সমিতির সভাপতি আতিয়ার রহমান।

এর আগে পবিত্র কুরআনখানি ও দোয়া মাহফিল, জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে অর্ধনমিতকরণ ও কালো পতাকা উত্তোলন, শোকর‌্যালি, শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদনের মধ্য দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হয়।

সকাল সাড়ে নয়টায় প্রশাসন ভবনের সামনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে অর্ধনমিত করেন
ভিসি প্রফেসর রাশিদ আসকারী। কালো পতাকা উত্তোলন করেন প্রো-ভিসি প্রফেসর শাহিনুর রহমান। সকাল পৌনে দশটায় প্রশাসন ভবনের সামনের চত্বর হতে এক বিশাল শোকর‌্যালি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে শহিদ স্মৃতিসৌধে সমবেত হয়। এরপর শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে শহীদ স্মৃতিসৌধে প্রথম পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন ভিসি ড. রাশিদ আসকারী। এসময় তাঁর সাথে ছিলেন প্রো-ভিসি ড. শাহিনুর রহমান, ট্রেজারার ড. সেলিম তোহা ও রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস. এম. আব্দুল লতিফ।

এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সমিতি, হল, অনুষদ, বিভাগ, বিভিন্ন পরিষদ, ছাত্র-সংগঠন, বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন, ইবি প্রেসক্লাব, ইবি সাংবাদিক সমিতি পর্যায়ক্রমে শহিদ স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন।

শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন শেষে শহিদ বুদ্ধিজীবীদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন এবং তাঁদের আত্মার শান্তি কামনায় দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন কেন্দ্রীয় মসজিদের পেশ ইমাম কাম খতিব ড. আ স ম শোয়াইব আহমেদ।


ঢাকা, ১৪ ডিসেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।