আদালতে ইবি ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের জামিন


Published: 2019-11-06 12:33:25 BdST, Updated: 2019-12-11 23:34:54 BdST

ইবি লাইভঃ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শাখা ছাত্রলীগের সাবেক ছাত্র বিষয়ক সম্পদক মিজানুর রহমান লালনকে প্রাণনাশের ও তার পরিবারকে হুমকির ঘটনায় লালনের ভগ্নীপতি শহিদুল ইসলামের করা জিআর মামলায় জামিন পেয়েছেন শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশ এবং সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিব।

গতকাল বেলা সাড়ে ১১ টায় মোকাম মেহেরপুর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালতে তারা জামিন পেয়েছেন। তারা উভয়ে উক্ত আদালতে উপস্থিত হয়ে জামিন আবেদন করলে বিজ্ঞ আদালত ন্যায়বিচারের স্বার্থে জামিনে মুক্তি দেন। জামিনে মুক্তি পাওয়া অন্য আরেক আসামী হলেন গাংনীর বেদবাড়ীয়া গ্রামের বাসিন্দা অনিক।

এর আগে গত রবিবার (৩ নভেম্বর) উক্ত মামলায় আটক থাকা ৪ আসামীকে একই আদালতে হাজির করা হয়। তারা আদালতে উপস্থিত হয়ে জামিন আবেদন করলে বিজ্ঞ আদালত তাদেরও জামিনে মুক্তি দেন।

জামিনে মুক্তি পাওয়া এসব আসামীরা হলেন, মামলার প্রধান আসামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের কর্মচারী ইলিয়াস জোয়ার্দার, ক্যাম্পাস পার্শ্ববর্তী শেখপাড়া গ্রামের বাসিন্দা উজ্জ্বল জোয়ার্দার, গাংনীর বেদবাড়ীয়া গ্রামের বাসিন্দা সবুজ হোসেন ও শৈলকূপার চরপাড়া গ্রামের ওবায়দুর রহমান।

শাখা ছাত্রলীগ সূত্রে, ছাত্রলীগের নেতা মিজানুর রহমান লালন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রক্টর প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমানের দূর্নীতির বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় আন্দোলন করে আসছে। ড. মাহবুবের বিরুদ্ধে আন্দোলন করায় মামলার এজাহারে থাকা আসামিগণ দীর্ঘদিন লালনকে হুমকি দিয়ে আসছেন।

সেই জেরে গত শুক্রবার (১ নভেম্বর) আসামীরা লালনের বাড়ি গিয়ে লালনকে খুঁজতে থাকে। লালনকে না পেয়ে তার পরিবারের সদস্যদের হুমকি দেয়। পরে ক্যাম্পাসে দুই দফায় বিক্ষোভ মিছিল ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে তালা দিয়ে আন্দোলন করে শাখা ছাত্রলীগের বিদ্রোহী গ্রুপের নেতা-কর্মীরা।

এঘটনায় গত শনিবার (২ নভেম্বর) রাতে লালনের ভগ্নীপতি শহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে মেহেরপুরের গাংনী থানায় একটি জিআর মামলা দায়ের করেন। ইবি কর্মচারীসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে দন্ডবিধির ১৪৩, ৪৪৮ এবং ৫০৬ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। মামলার ৩ নম্বর আসামী ছিলেন শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিব ও ৪ নম্বর আসামী সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশ।

এবিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা মঙ্গলবার দুপুরে আদালতে উপস্থিত হই। পরে আমাদের আইনজীবী বিচারকের কাছে জামিন আবেদন করলে বিজ্ঞ আদালত আমাদের জামিনে মুক্তি দেয়।’

ঢাকা, ০৬ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।