স্টুডেন্ট টু স্টার্টআপঃ "আমার উদ্ভাবন, আমার স্বপ্ন"


Published: 2019-09-26 18:43:57 BdST, Updated: 2019-10-21 16:42:46 BdST

ইবি লাইভঃ "আমার উদ্ভাবন, আমার স্বপ্ন" শিরোনামে দ্বিতীয় পর্বের মতো দেশের প্রায় ১০০ টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে চলছে "স্টুডেন্ট টু স্টার্টআপ" প্রোগ্রাম।

স্বপ্নবাজ তরুণদের উদ্ভাবনী ভাবনা, উদ্যোগ ও স্টার্টআপকে কাজে লাগিয়ে দেশের বেকারত্বের হার কমানো ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীন আইসিটি বিভাগের আয়োজনে এ স্টার্টআপ প্রতিযোগিতা। আইডিয়া প্রজেক্ট, ইয়াং বাংলা, স্টার্টআপ বাংলাদেশ'সহ কয়েকটি সংগঠনের সহযোগীতায় সারাদেশে চলছে এ প্রতিযোগীতা।

তারই অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্যাম্পাস পিচিং অনুষ্ঠিত হয়েছে। বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদের গ্যালারী কক্ষে এটি অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে অনলাইন রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে নিজেদের নতুন আইডিয়া নিয়ে হাজির হয় শিক্ষার্থীরা।

পিচিং এ শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন গ্রুপে বিভক্ত হয়ে বিচারকদের সামনে আইডিয়া উপস্থাপন করেন। সেখান থেকে বাছাই করা সেরা ৩ টি আইডিয়া জাতীয় পর্যায়ে যাওয়ার সুযোগ পাবে। প্রতিযোগীতায় বিচারকের আসনে অধিষ্ঠিত ছিলেন আইডিইএ প্রকল্পের সহযোগী ব্যবস্থাপক আনিছুর রহমান, বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাব বিজ্ঞান ও তথ্য পদ্ধতি বিভাগের প্রভাষক উম্মে সালমা লুনা ও গনিত বিভাগের প্রভাষক শামীমা নাসরিন।

ইয়াং বাংলা ইবি শাখার সিএ তন্ময় সাহা টনির সভাপতিত্বে ও মারিয়া তানজিমের সঞ্চালনায় এর আগে এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. হারুন-উর-রশীদ আসকারী।

এসময় তিনি বলেন, "চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে শরীক হওয়ার প্রথম সিঁড়ি ডিজিটাল বাংলাদেশ। আর এই বিপ্লব বর্তমান মানব সমাজের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। বর্তমান বিশ্ব প্রযুক্তিগতভাবে দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। এই এগিয়ে যাওয়াটাই চতুর্থ শিল্প বিপ্লব ঘটানোর সহায়ক হিসেবে কাজ করছে।

তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশে বর্তমানে উচ্চ শিক্ষার সাথে সম্পৃক্ত রয়েছে প্রায় ৪০ লক্ষ শিক্ষার্থী। যাদের দূর্ভাবনার অন্যতম প্রধান বিষয় হলো শিক্ষা শেষে চাকরি পাবো কিনা। সেই দিকটা মাথায় রেখে বর্তমানে বেশকিছু উদ্যোক্তামূলক প্রতিষ্ঠান শিক্ষার্থীদের মাঝে অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করে আসছে। এর মাধ্যমে কেবল শিক্ষার্থীদের চাকরি করা নয় বরং চাকরি দেয়াটাও সম্ভব হবে।’

আইডিয়া প্রকল্পের সহযোগী ব্যবস্থাপক আনিছুর রহমান বলেন, এ পর্বে মোট ২৫ টি ভ্যেনুতে ১০০ টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহন করবে। সেখান থেকে ৭৫ টি টিম জাতীয় স্টার্টআপ ক্যাম্পে অংশ নেওয়ার সুযোগ পাবে। দর্শক এবং বিচারকদের ভোটে বাছাই করা হবে মূল প্রতিযোগিতার শীর্ষ ৩০ স্টার্টআপ। পরে জাতীয় পর্যায়ে সেরা ১০ স্টার্টআপকে বিজয়ী ঘোষণা করা হবে। তাদের স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করার জন্য ১০ লাখ টাকা করে অনুদান দেওয়া হবে।

ঢাকা, ২৬ সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।