পাঠক ফোরামের সভাপতি: খুবিতে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে লাইব্রেরিতে ধর্ষণ


Published: 2019-07-22 19:04:50 BdST, Updated: 2019-08-19 08:14:18 BdST

খুবি লাইভ: এবার ভিন্ন কৌশলে বিশ্ববিদ্যালয়ে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। তাও আবার যেন তেন জায়গায় নয় খোদ খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) লাইব্রেরিতে এই ঘটনা ঘটিয়েছে চারুকলা বিভাগের এক শিক্ষার্থী। তার নাম পাপ্পু কুমার।

ধর্ষণ ও যৌন হয়রানির ঘটনায় যখন সারা দেশের মানুষ সোচ্চার ঠিক তখনিই সহপাটিকে ঘুমের ট্যাবলেট খাইয়ে পুরাে বিশ্ববিদ্যালয়ে তোলপাড় সৃষ্টি করেছে। অশ্লীলতারয় যেন গোটা দেশ ছেয়ে গেছে।

জানা গেছে, এক শিক্ষার্থী তার সহপাঠি ছাত্রীকে ঘুমের ট্যাবলেট খাইয়ে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইন্সটিটিউটের লাইব্রেরিতে এক ছাত্রীকে নিয়ে ধর্ষণ করে। এই অভিযোগ উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের ১৬তম ব্যাচের ছাত্র পাপ্পু কুমারের বিরুদ্ধে।

এই ঘটনার পর ধর্ষিতা ছাত্রীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের নারী নির্যাতনবিরোধী কমিটি পাপ্পুর বিরুদ্ধে তদন্ত সম্পন্ন করেছে। তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

পাপ্পু বঙ্গবন্ধু পাঠক ফোরামের খুবি শাখার সভাপতি। ঘটনার পর গত ১৫ জুলাই পাপ্পু বিশ্ববিদ্যালয়ে গেলে ছাত্ররা তাকে মুখে কালি লাগিয়ে গলায় জুতার মালা ঝুলিয়ে ক্যাম্পাস থেকে বের করে দেয়।

ঘটনার বিররণে জানা গেছে, গত ৩ জুলাই খুবির চারুকলা অনুষদে চিত্রকলা প্রদর্শনীতে পাপ্পু নামের ওই শিক্ষার্থী এক ছাত্রীকে ডেকে নেয়। পরে ওই ছাত্রীকে ঘুমের ট্যাবলেট খাইয়ে চারুকলার লাইব্রেরিতে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। এরপর পাপ্পু নিজের রুমে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। বিষয়টি তখনো জানা জানি হয়নি।

ওই ঘটনার পর ছাত্রীটি লাইব্রেরির সিঁড়িতে কান্নাকাটি করতে থাকে। এসময় রাত আড়াইটার দিকে দারোয়ান তাকে দেখতে পান। তখন তিনি পাপ্পুকে ডাকার ব্যবস্থা করেন। পরে ধর্ষিতার পরিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রবিষয়ক পরিচালক বরাবর পাপ্পুর শাস্তি দাবি করে আবেদন করে।

ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে খুবির ছাত্র বিষয়ক পরিচালক প্রফেসর মো. শরীফ হাসান বলেন, এই ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের নারী নির্যাতনবিরোধী কমিটি তদন্ত সম্পন্ন করেছে। খুব শিগগিরই পাপ্পুর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

ঢাকা, ২২ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।