ইবি: ”ভবিষ্যতে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে গবেষণা হবে“


Published: 2018-10-08 23:22:33 BdST, Updated: 2018-12-17 11:41:56 BdST

ইবি লাইভ: বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু চেয়ারের দ্বায়িত্ব প্রাপ্ত শিক্ষক প্রফেসর শামসুজ্জামান খান বলেছেন, ভবিষ্যতে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা হবে দেশ সেরা।এই বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যদের ভালোবাসা ও আন্তরিকতায় অন্তরের স্পর্শ আছে যা আমাকে মুগ্ধ ও আপ্লুত করেছে।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) বঙ্গবন্ধু চেয়ারের প্রফেসর হিসেবে দায়িত্ব গ্রহন পরবর্তী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। সোমবার দুপুর তিনটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের কনফারেন্স রুমে এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

তিনি অনুভুতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, পৃথিবীতে আধিপত্যবাদের রাজনীতির কারনে বাংলাদেশের মানুষের অনেক বড় অর্জন তেমন প্রচার পায় না। বঙ্গবন্ধু জীবনের প্রায় অনেক সময় দেশের জন্য জেল খাটার পরও যত বই লিখেছিলেন, সেজন্য অনেক বিজ্ঞ ব্যক্তি বলেন তিনি একজন দক্ষ ও বিচক্ষন রাজনীতিবিদের পাশাপাশি একজন ভালো লেখকও ছিলেন। এসময় তিনি ভবিষ্যতে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে কি কি কাজ করবেন তার উপর একটি দিক নির্দেশনা দেন।

ভিসি প্রফেসর ড. মো: হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেন, বঙ্গবন্ধু চেয়ারের প্রতিষ্ঠা করা এবং এই চেয়ারে প্রফেসর শামসুজ্জামান খানের মতো এমন একজন নির্লোভ ব্যক্তিত্বকে নিয়োগ যা এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে মাইলফলক, আর আমরা এখানে উপস্থিত সকলেই ইতিহাসের স্বাক্ষী হয়ে থাকলাম।

তিনি বলেন, আমরা এখানে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের যে তিনজন অভিভাবক আছি, আর আমাদের অভিভাবক হিসেবে উপস্থিত আছেন আর্ন্তজাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ফোকলোরবিদ বিশিষ্ট গবেষক ও বঙ্গবন্ধু প্রেমী বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক প্রফেসর শামসুজ্জামান খান।

তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, প্রফেসর শামসুজ্জামান খান বঙ্গবন্ধু চেয়ারের অধ্যাপক হিসাবে দায়িত্ব গ্রহনের পর হতে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় আর্ন্তজাতিকীকরনের পথে এগিয়ে যাচ্ছে সেই যাত্রা আরো ত্বরান্বিত হবে। এসময় বক্তব্য রাখেন প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মো: শাহিনুুর রহমান ও ট্রেজারার প্রফেসর ড. মো: সেলিম তোহা।

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য উপস্থাপন করেন ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. অরবিন্দু সাহা, আইন অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. রেবা মন্ডল, বঙ্গবন্ধু পরিষদের প্রফেসর ড. মাহবুবুর রহমান, শাপলা ফোরামের সভাপতি প্রফেসর ড. কামাল উদ্দিন, নবাগত লেকচারার মো: রবিউল ইসলাম ও শিরীনা বিথী ও কর্মকর্তা সমিতির সভাপতি সামছুল ইসলাম জোহা প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ছাত্র-উপদেষ্টা প্রফেসর ড. রেজওয়ানুল ইসলাম।

এর আগে বাংলা বিভাগে বঙ্গবন্ধু চেয়ারের প্রফেসর হিসেবে তিনি এ দায়িত্বপদ গ্রহন করেন। অনুষ্ঠানের শুরুতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ, পরিষদ ও সমিতির নেতৃবৃন্দ ফুল ও ক্রেস্ট দিয়ে প্রফেসর শামসুজ্জামান খান ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. মো: হারুন-উর-রশিদ আসকারী, প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. মো: শাহিনুুর রহমান, ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা, প্রক্টর প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমান ও ছাত্র-উপদেষ্টা প্রফেসর ড. রেজওয়ানুল ইসলামকে অভিনন্দিত করেন। অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর “অসমাপ্ত আত্মজীবনী” বইয়ের কপি নতুন শিক্ষকদের হাতে তুলে দেন প্রফেসর শামসুজ্জামান খান।

সন্ধ্যায় মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব ম্যুারালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পমাল্য অর্পন করেন অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ২০ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৩৫ তম সিন্ডিকেটে বাংলা বিভাগের অধীনে গবেষণাধর্মী বঙ্গবন্ধুর চেয়ার প্রতিষ্ঠা সংক্রান্ত নীতিমালা গৃহীত হয়েছিল এবং গত ১লা অক্টোবর সোমবার অনুষ্ঠিত ২৪২ তম সিন্ডিকেটে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক বিশিষ্ট ফোকলোরবিদ ও গবেষক প্রফেসর শামসুজ্জামান খানকে আগামী দুই বছরের জন্য এই চেয়ারের দায়িত্ব দেয়া হয়।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে পঠন-পাঠন ও উচ্চতর গবেষনার লক্ষে এই চেয়ারে প্রফেসর পদে নিয়োগের জন্য গত ১৯ মে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।

 

 

ঢাকা, ০৮ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।