ছাত্রলীগকে কটুক্তি করায় ইবি শিক্ষার্থী বহিষ্কার


Published: 2018-08-06 21:46:44 BdST, Updated: 2018-10-24 11:44:48 BdST

ইবি লাইভ: ‘বাংলাদেশ ছাত্রলীগ’র নামে কটুক্তি করায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) এক শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। বহিষ্কারকৃত ওই শিক্ষার্থীর নাম মৌসুমি মৌ। সে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। সাময়িক বহিষ্কারের বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এসএম আব্দুল লতিফ নিশ্চিত করেছেন।

রেজিস্ট্রার অফিস সূত্রে জানা যায়, গতকাল (সোমবার) রাতে ওই শিক্ষার্থী তার ফেসবুক আইডি থেকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সম্পর্কে অশালীন ভাষায় কটুক্তিপূর্ণ স্ট্যাটাস দেয়। স্ট্যাটাসটি হলো ‘ নিষিদ্ধ পল্লিতে বেলুন দুর্ঘটনায় যাদের জন্ম তাদেরকে ছাত্রলীগ বলে’। কালেক্টেড। স্ট্যাটাসটি মুহুর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায় এবং তার বিরুদ্ধে নানা ধরনের মন্তব্য আসতে থাকে বিভিন্ন মহল থেকে।

কিন্তু মঙ্গলবার সকালেসে তার আইডি থেকে ঐ স্ট্যাটাসটি মুছে ফেলে। পরে বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কানে গেলে আজ ( মঙ্গলবার ) তাকে তার বিভাগে খোঁজ নেয়। কিন্তু না পাওয়া যাওয়ায় তার বিরুদ্ধে বিভাগে লিখিত অভিযোগ করে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি বরাবর ঐ ছাত্রীর বহিষ্কারের দাবিতে লিখিত অভিযোগ করে শাখা ছাত্রলীগ।

বিষয়টি আমলে নিয়ে নিউজিল্যান্ডে অবস্থিত ভিসি প্রফেসর ড. রাশিদ আসকারীর সাথে আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. শাহিনুর রহমান তাকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িক বহিস্কার করে। বিষয়টি অনুসন্ধানপূর্বক রিপোর্ট পেশ করার জন্য ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড.রেজওয়ানুল ইসলামকে আহবায়ক করে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল প্রভোস্ট প্রফেসর ড.আহসান-উল-আাম্বিয়া ও সহকারী প্রক্টর এসএম আব্দুর রহিম। কমিটির সদস্যদের আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে কেন তাকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে না তার কারন দর্শাতে বলা হয়েছে।

এদিকে মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহিনুর রহমান শাহিন বাদী হয়ে ইবি থানায় মামলা দায়ের করেন। এামলার বাদী ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহিনুর রহমান শাহিন বলেন, ‘এটি শুধু এই ক্যাম্পাস ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে স্ট্যাটাস নয় বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া সংগঠন ‘বাংলাদেশ ছাত্রলীগ’র বিরুদ্ধে কটুক্তি। আমরা তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।’

মামলার ইবি কথা স্বীকার করে থানার ওসি রতন শেখ বলেন, ‘আইসিটি আইনে একটি মামলা হয়েছে। আমরা এ বিষয়ে তদন্ত করছি।’
তবে ওই ছাত্রীর মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন দিয়েও তার সাথে কোনভাবেই যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

উল্লেখ্য, এর আগেও এ ছাত্রীর বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ পাওয়া গেছে। সুন্দরী হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের একাধিক নেতা-কর্মীর সাথে অবৈধ সম্পর্ক স্থাপন, বিভাগের বিভিন্ন শিক্ষকের সাথে বিশেষ সম্পর্ক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের এক প্রভাবশালী শিক্ষকের প্রলোভনে পড়ে তার বিভাগের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানীর অভিযোগও আনে এই ছাত্রী। ফলে ঐ শিক্ষক চাকরিচ্যুত হন।

 


ঢাকা, ০৬ আগস্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।